মুম্বই পৌরনিগমের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ করে টুইট করা ইস্তক বিপাকে পড়েছেন জনপ্রিয় কৌতুকাভিনেতা কপিল শর্মা।

প্রথমেই তাঁর বিরুদ্ধে নেমে পড়ে রাজ ঠাকরের মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা (এমএনএস)। তাদের অভিযোগ, ভারসোভায় অফিস বানাতে গিয়ে সংরক্ষিত ম্যানগ্রোভ অরণ্য ধ্বংস করেছেন কপিল। এর পর তাঁকে বিপাকে ফেলে মুম্বই পৌরনিগম। তাদের অভিযোগ, মুম্বইয়ের গোরেগাঁও অঞ্চলে ডিএইচএল এনক্লেভে ন’ তলায় ফ্ল্যাট বানাতে গিয়ে তিনি প্ল্যান থেকে অনেক বিচ্যুতি ঘটিয়েছেন। এ ব্যাপারে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ সত্যি প্রমাণিত হলে কপিলের ৩ বছর পর্যন্ত জেল এবং ৭ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে।

এমএনএস-এর অভিযোগের সূত্র ধরে ম্যানগ্রোভ ধ্বংসের অভিযোগের তদন্তে নেমেছে বন দফতর। সোমবার কপিল শর্মার ভারসোভার অফিস পরিদর্শনে আসেন মহারাষ্ট্রের বন দফতরের আধিকারিকরা। অফিস এবং অফিস সংলগ্ন অঞ্চল ঘুরে দেখে সহকারী ফরেস্ট কনজারভেটর মকরন্দ ঘোড়কে  জানিয়েছেন, মুখ্য কনজারভেটরের নির্দেশমতো ওই স্থান পরিদর্শনে গেছিল তাঁদের দল। শর্মা ছাড়াও আরও পঞ্চাশ-ষাটটি পরিবার  আইন না মেনে বাড়ি তৈরি করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here