অগুস্তা ওয়েস্টল্যান্ড ভিভিআইপি চপার কেনাবেচা‌য় বেআইনি লেনদেনে যুক্ত থাকার অভিযোগে প্রাক্তন বায়ূসেনা প্রধান এসপি ত্যাগীকে গ্রেফতার করল সিবিআই। ওই চুক্তি অনুযায়ী ইতালীয় সংস্থাটি থেকে ৩৭০০ কোটি টাকার বিনিময়ে ১২টি চপার কেনার কথা ছিল ভারতের। দীর্ঘক্ষণ জেরার পর শুক্রবার ত্যাগীর সঙ্গে গ্রেফতার করা হয় তাঁর ভাইপো সঞ্জীব ত্যাগী এবং আইনজীবী গৌতম খৈতানকে। ওই চুক্তি কার্যকর করার জন্য ত্যাগী তাঁর পদমর্যদাকে অন্যায় ভাবে কাজে লাগিয়েছিলেন বলে অভিযোগ।

অগুস্তা ওয়েস্টল্যান্ড-এর থেকে যে ১২টি চপার কেনার কথা ছিল, সেগুলি ব্যাহৃত হত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও অন্য গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের জন্য। এর জন্য দেশের বহু গুরুত্বপূর্ণ নেতা ও আধিকারিক বেআইনি লেনদেনে যুক্ত ছিলেন বলে অভিযোগ। সেই টাকার পরিমাণ ৪৩২ কোটি টাকার কম নয়।

ইতালি ও ভারতের তদন্তকারীদের অভিযোগ, প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান ত্যাগী চপারের যোগ্যতামান কমিয়ে অগুস্তা ওয়েস্টল্যান্ডকে বরাত পেতে সাহায্য করেছিলেন। প্রাথমিক ভাবে চপারগুলিকে ৬০০০ মিটার ওপর দিয়ে উড়তে হবে বলে শর্ত থাকলেও, তা কমিয়ে ৪৫০০ মিটার করে দেন ত্যাগী, এমনটাই অভিযোগ।

২০০৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ভারতের বায়ুসেনা প্রধান ছিলেন ত্যাগী। ২০০৪ সাল থেকেই তিনি এই বেআইনি লেনদেনের চক্রে যুক্ত হয়ে পড়েন বলে অভিযোগ। সরাসরি ত্যাগীকে না দিয়ে তার ভাইপো-ভাইঝিদের ভারত ও মরিশাসের অ্যাকাউন্টে একটি তিউনিশিয়ার সংস্থার মাধ্যমে টাকা দেওয়া হয়, এমনই খবর তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here