congress CM

ওয়েবডেস্ক: অন্ধ্রপ্রদেশের দ্বিখণ্ডনের প্রতিবাদ করে কংগ্রেস ছেড়েছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কিরণকুমার রেড্ডি। শুক্রবার কংগ্রেস সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর বাড়িতে আলোচনার পর ফের কংগ্রেসে যোগ দিলেন।

রাহুলের বাড়িতে ইতিবাচক আলোচনার পরই কংগ্রেসের তরফে নয়াদিল্লির সদর দফতরে আনুষ্ঠানিক ভাবে রেড্ডি কংগ্রেসে প্রত্যাবর্তন করেন। দলে ফিরে তিনি বলেন, কেন্দ্রে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকার গঠন না হলে অন্ধ্রপ্রদেশ (পুনর্গঠন) আইন কোনো মতেই বাস্তবায়িত হবে না।

“গত চার বছর ধরে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার অন্ধ্রপ্রদেশকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা দেওয়া থেকে বঞ্চিত রেখেছে। শুধু মাত্র আশ্বাস দিয়ে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। এ ভাবে চলতে থাকলে সংসদের প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থায় আঘাত লাগতে পারে”। এ দিন এমনটাই দাবি করেন রেড্ডি।

তিনি বলেন, “কেন্দ্রের বিজেপি এবং রাজ্যের টিডিপি সরকার- উভয়েই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সময়কালের প্রস্তাবিত প্রকল্পগুলি বাস্তবায়িত করতে পারেনি। ১১টি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, পৃথক রেলওয়ে জোন নির্মাণ এবং পোল্লাবরম প্রকল্প এখনও অধরা”।

পৃথক তেলঙ্গনা রাজ্যের বিরোধিতা প্রসঙ্গে প্রশ্ন করায় তিনি বলেন, “যা হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। এখন দেখতে হবে তেলুগুদের উন্নয়ন কী ভাবে করা সম্ভব। কংগ্রেস পরিবারের সদস্য হিসাবে আমি গর্বিত। রাহুল গান্ধীর সঙ্গে আমি যদি ন্যূনতম কাজের সুযোগ পাই তা হলে দলকে শক্তিশালী করার কথাই ভাবব। একজন সাধারণ কর্মী হিসাবেই আমি কংগ্রেসে যোগ দিলাম। সিদ্ধান্ত নেবেন দলের নেতৃত্ব “।

অন্ধ্রপ্রদেশ কংগ্রেসের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক উম্মেন চণ্ডী প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর প্রত্যাবর্তনকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, রেড্ডির ফিরে আসায় রাজ্যে কংগ্রেস আরও শক্তিশালী হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন