yashwant sinha varun gandhi

ওয়েবডেস্ক: তালিকায় যোগ হলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা। দেশের বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে নিজের দলের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন তিনি।

অর্থনীতির হাল ক্রমশ নিম্নমুখী হওয়ার জন্য দেশের প্রধানমন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রী দু’জনকেই দুষেছেন বাজপেয়ী জমানার বিজেপির অর্থমন্ত্রী। তবে তিনিই প্রথম নন, গত কয়েক মাস ধরেই বিজেপির ভেতর থেকেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর ক্রমশ চড়ছে। জিএসটি, বিমুদ্রাকরণ, রোহিঙ্গা ইস্যুতে নিজেদের নেতাদের থেকেই তোপের মুখে পড়ছে কেন্দ্র।

সেই তালিকায় একবার চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

সুব্রহ্মণ্যম স্বামী

দেশে বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে মাসখানেক আগেই নাম না করে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন রাজ্যসভা সাংসদ তথা বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। ভারতীয় অর্থনীতি সরু সুতোর ওপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি।

একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, “এখন আমাদের অর্থনীতি একটা সরু সুতোর ওপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে। যে কোনো মুহূর্তে ধসে পড়তে পারে। অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য অনেক পদক্ষেপ করতে হবে। কিন্তু কিছু পদক্ষেপ না করা হলে ভয়াবহ মন্দার সম্মুখীন হতে পারি আমরা। ব্যাঙ্ক ধসে পড়তে পারে, কারখানা বন্ধ হয়ে যেতে পারে।”

যা দেখানো হচ্ছে, ভারতের জিডিপি তার থেকেও কম, এমনই মন্তব্য করেছিলেন স্বামী।

বরুণ গান্ধী

রোহিঙ্গা শরণার্থী ইস্যুতে দিন দুয়েক আগেই কেন্দ্রকে অস্বস্তিতে ফেলেছেন বিজেপি নেতা বরুণ গান্ধী। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিতাড়ন করতে চায় কেন্দ্র। এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টে একাধিকবার হলফনামাও পেশ করেছে তারা। রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আইএস এবং পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠনগুলির সঙ্গে যোগাযোগ থাকারও অভিযোগ করা হয়েছে। তবে বরুণ বলেছেন রোহিঙ্গাদের যেন শরণার্থীর চোখেই দেখা হয়।

বরুণের এ হেন মন্তব্যের জবাবে দেশের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হংসরাজ আহির বলেছেন, “যে দেশের কথা ভাবে, সে এরকম মন্তব্য কখনই করবে না।”

আরও পড়ুন: দেশের অর্থনীতি নিয়ে অরুণ জেটলির বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন বাজপেয়ী জমানার বিজেপির অর্থমন্ত্রী যশবন্ত সিনহা
অরুণ শৌরি

গত জানুয়ারিতে বিমুদ্রাকরণ নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন প্রাক্তন বিজেপি নেতা অরুণ শৌরি। তাঁর মতে বিমুদ্রাকরণ ছিল, ‘গত ৭০ বছরের মধ্যে সব থেকে বড়ো ভুল।’ কারও সঙ্গে আলোচনা না করেই এই সিদ্ধান্ত যে একতরফা ভাবে নেওয়া হয়েছে সে কথাও বলেছিলেন তিনি।

সংঘ পরিবার

জিএসটি এবং বিমুদ্রাকারণের ব্যাপারে বিজেপিকে তুলোধনা করেছে সংঘ পরিবারও। এ মাসের গোড়াতেই আরএসএসের আর্থিক বিশেষজ্ঞ এস গুরুমূর্তি বলেছিলেন, ভারতীয় অর্থনীতি ক্রমশ নীচের দিকে যাচ্ছে। এর আগে জুন মাসে জিএসটির ব্যাপারে সরকারের সমালোচনা করে আরএসএসের আরও একটা শাখা স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ বলেছিল, “স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ আগে থেকে বলে আসছে যে জিএসটির ফলে লাভবান হবেন বড়ো ব্যবসায়ী এবং এমএনসিগুলি। কিন্তু ছোটো ব্যবসায়ীদের পক্ষে তা বিপদ ডেকে আনতে পারে।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here