fake-website

নয়াদিল্লি: গোটা দেশ জুড়ে প্রায় ৩০০০ প্রার্থীকে প্রতারণা করে ১২ লক্ষ টাকা লুট করেছে এক দল প্রতারক। সরকারি চাকরি দেওয়ার নাম করে কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রকে চাকরির নামে ভুয়ো নোটিশ দিয়ে প্রতারণা করেছে তারা। এই র‍্যাকেটটি চলত পূর্ব দিল্লি এলাকার কল্যাণপুরীর একটি বাড়ি থেকে। সোমবার অপরাধ দমন শাখার হাতে ধরা পড়ে দলের দু’জন সদস্য। ডেপুটি কমিশনার অব পুলিশ ভীষ্ম সিং বলেন, ‘ পণ্ডিতদিনদয়ালকৃষিবিকাশ.কম’ (“panditdeendayalkrishivikas.com”) নামে একটি নকল ওয়েবসাইটও খুলে ছিল এই দলটি। সেই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ৬ অক্টোবর থেকে দেশ জুড়ে কর্মপ্রার্থীদের প্রতারণা করা শুরু করে ছিল তারা। কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রকে আবেদনের শেষ তারিখ ২৮ অক্টোবর বলে জানানো হয়েছিল সেই ভুয়ো চাকরির নোটিশে।

ডেপুটি কমিশনার আরও বলেন, নকল নোটিশকে সত্যি বানানোর জন্য প্রতারকরা কৃষি মন্ত্রকের আসল ঠিকানা দিয়ে রেখেছিল ওই বিজ্ঞপ্তিতে। প্রার্থীদের ডাক যোগে আবেদনপত্র ওই ঠিকানায় পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সঙ্গে নিজেদের একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বরে ৪০০ টাকা করে আবেদন ফি ডিমান্ড ড্রাফটের মাধ্যমে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, ১০ দিন আগে কৃষি মন্ত্রক থেকে তাদের কাছে এই বিষয়টি জানানো হয়েছিল। বলা হয়েছিল, প্রায় মাস খানেক ধরে মন্ত্রকে চাকরির নামে প্রচুর আবেদন আসছে কৃষি ভবনে। কিন্তু এমন কোনো বিজ্ঞপ্তি মন্ত্রক দেয়নি। তার পরই অপরাধ দমন শাখায় ঘটনাটি জানানো হয়।

তদন্তকারীরা জানান, তদন্তের স্বার্থে কথা বলা হয়েছিল বেশ কিছু আবেদনকারীর সঙ্গে। তারাই ওই ওয়েবসাইটের ব্যাপারে জানায়। তার থেকেই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের কথা জানা যায়। সেখানে যোগাযোগ করে প্রতারকদের নাগাল পাওয়া গিয়েছে। ইন্টারনেটের আইপি অ্যাড্রেসের মাধ্যমেও ওই সাইট চালনাকারী কম্পিউটারের মালিকের খোঁজ মেলে। এই সবের সূত্র ধরেই কল্যাণপুরীর একটি বাড়ি থেকে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়। এরা দু’জনই স্কুলছুট বেকার। এ ছাড়াও আরও তিন জন এই দলের সঙ্গে জড়িত।

ঘটনার প্রেক্ষিতে কৃষি মন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে, এমন ভুয়ো চাকরির সঙ্গে কৃষি মন্ত্রকের নাম যে জড়ানো হচ্ছে সে খবর তাদের কাছে এসেছে। আর সঙ্গে সঙ্গেই জালিয়াতি রুখতে মন্ত্রকের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে সচেতন আর সতর্ক করা শুরু হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here