খবর অনলাইন: সরকারি সংরক্ষণের সুবিধা পাবেন শুধু রূপান্তরকামীরাই। বৃহস্পতিবার এই রায় দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, সংরক্ষণের সুবিধা সমকামী বা উভকামীরা পাবেন না।

দু’ বছর আগে সুপ্রিম কোর্ট রূপান্তরকামীদের তৃতীয় লিঙ্গ হিসাবে স্বীকৃতি দেয়। এই তৃতীয় লিঙ্গের জন্য সংরক্ষণের ব্যবস্থা করতে পরের বছর শীর্ষ আদালত কেন্দ্রীয় সরকারকে নির্দেশ দেয়। কিন্তু তখনই প্রশ্ন ওঠে, তৃতীয় লিঙ্গ হিসাবে কাদের ধরা হবে। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, শুধুমাত্র রূপান্তরকামীদের তৃতীয় লিঙ্গ হিসাবে ধরা হবে। তাঁরাই শুধু সংরক্ষণের সুবিধা পাবেন। শিক্ষা, চাকরি ও অন্য নানা ক্ষেত্রে রূপান্তরকামীদের জন্য এখনও সংরক্ষণের ব্যবস্থা না হওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারকে মৃদু ধমক দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

দেশের এলজিবিটি আন্দোলনের কর্মীরা অবশ্য সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ে সন্তুষ্ট হতে পারেননি। তাঁদের বক্তব্য, শীর্ষ আদালতের রায়ের পরেও ধোঁয়াশা থেকে যাচ্ছে। তাঁদের প্রশ্ন, কী ভাবে নির্ধারণ হবে কে প্রকৃত রূপান্তরকামী আর কে নন। যে কেউ নিজেকে রূপান্তরকামী হিসাবে দাবি করে তৃতীয় লঙ্গের মর্যাদা দাবি করতে পারেন। তাঁরা তাই এ ব্যাপারে স্পষ্ট নির্দেশিকা চান।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here