বালি-ভাস্কর্যের পীঠস্থান পুরী, চিনে নিন আরও এক শিল্পীকে

0
214
manas kumar sahu

নিজস্ব প্রতিনিধি, পুরী: বালি ভাস্কর্যের কথা বললে প্রথমেই যাঁর নাম আসে তিনি সুদর্শন পট্টনায়ক। পুরীর সমুদ্রের ধারে বালিতে ফুটিয়ে তোলেন অসাধারণ সব ভাস্কর্য। এই কাণ্ডকারখানায় সারা বিশ্বেই বেশ নামডাক হয়েছে সুদর্শনবাবুর। তবে সুদর্শনবাবুর মতো আরও এক বালি-ভাস্করও ক্রমে উঠে আসছেন। তিনি বালিতে ফুটিয়ে তোলেন একের পর এক সুন্দর শিল্পকলা। ইতিমধ্যে তাঁরও নামডাক হতে শুরু করেছে।

sand-artist manas kumar sahu
সৃষ্টিকর্মে ব্যস্ত মানস কুমার সাহু (বাঁ দিকে)।

তিনি বছর ৩৫-এর বালি-ভাস্কর মানসকুমার সাহু। তাঁর বালি ভাস্কর্য একটু অন্য রকম। মোটা বালিকে কাজে লাগিয়ে বড়ো বড়ো মূর্তি তৈরি করেন মানসবাবু। ভারতের নানা জায়গা ছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় তাঁর ভাস্কর্যের প্রদর্শনী করে এসেছেন তিনি।

২০০১ সালে ইতালিতে একটি বালি ভাস্কর্যের প্রদর্শনীতে তৃতীয় পুরস্কার অর্জন করেছিলেন তিনি। সেখান থেকেই তাঁর যাত্রা শুরু। গত মাসেই মালয়শিয়া থেকে ফিরেছেন তিনি। আগস্টে যাচ্ছেন সিঙ্গাপুর। কুড়িতম আন্তর্জাতিক বালি ভাস্কর্য উৎসবে যোগ মানসবাবু।

শুধু একা নন, নিজের শিল্পীসত্তাকে আরও ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য জনা কুড়ি ছাত্রকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন তিনি। তবে আপশোস একটাই, তাঁর ভাস্কর্যের কোনো স্বীকৃতি এখনও কেন্দ্র বা ওড়িশা সরকারের তরফ থেকে পাওয়া যায়নি।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here