ইস্তফা দেওয়া আইএএস অফিসারকে পাকিস্তানে চলে যেতে বললেন বিজেপি নেতা

0
Sasikanth Senthil
ছবি: দ্য ইকনোমিক্স টাইমস-এর সৌজন্যে

ওয়েবডেস্ক: কর্নাটকের আইএএস অফিসার শশীকান্ত সেন্থিলের পদত্যাগকে “ঔদ্ধত্যপূর্ণ কাজ” হিসাবে আখ্যা দিয়ে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা অনন্তকুমার হেগড়ে তাঁকে পাকিস্তানে চলে যেতে বললেন।

টুইটারে একটি ভিডিও বার্তায় হেগডে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করার জন্য সেন্থিলের উদ্দেশে কটূক্তি করেছেন। তিনি বলেন, কেন্দ্র ও সংসদ কর্তৃক সর্বাধিক ভিত্তিতে গৃহীত সিদ্ধান্ত নিয়ে এ ভাবে প্রশ্ন তোলা কোনো আইএএস আধিকারিকের পক্ষে এর থেকে বড়ো ‘রাষ্ট্রদ্রোহ’ হতে পারে না।

হেগড়ে বলেন, “যাঁরা তাঁর এই পদক্ষেপকে সমর্থন করেছেন তাদের সঙ্গে নিয়ে পাকিস্তান চলে যাওয়াই ওই আইএএস অফিসারের প্রথম কাজ হওয়া উচিত।। এটি বেশ সহজ কাজ এবং একটি স্থায়ী সমাধানও। দেশ ধ্বংস করার পরিবর্তে তাঁর উচিত সেখানে গিয়ে দেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়া”।

হেগড়ের মন্তব্য, “এই লোকটি যদি এমন সিদ্ধান্তে আসতে পারেন যে, কেন্দ্রীয় সরকার ফ্যাসিবাদী; তার পরে আমরা তাঁকে অন্য বেতনভোগী গদ্দার বলতেই পারি। কারণ তিনি তাঁর আসল বেতনদাতাদের বেঁধে দেওয়া সুরেই নাচছেন! সেই কারণেই হয়তো তিনি এই বিতর্ক শুরু করেছেন”।

[ আরও পড়ুন: গাড়িশিল্পে মন্দার নেপথ্যে দুই বহুজাতিক সংস্থাকে দুষলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী! ]

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালের কর্নাটকের আইএএস ব্যাচের আইএএস শশীকান্ত গত শুক্রবার দক্ষিণ কন্নড় জেলার ডেপুটি কমিশনারের পদ থেকে ইস্তফা দেন। নিজের ইস্তফাপত্রে তিনি লিখেছিলেন, “দেশের বিপন্ন গণতান্ত্রিক পরিস্থিতিতে তাঁর পক্ষে সরকারি আমলা হিসাবে কাজ চালিয়ে যাওয়াটা অনৈতিক হবে।” একই সঙ্গে তিনি আইএএসের বাইরে থেকে দেশের মঙ্গলে কাজ চালিয়ে যাওয়ার কথাও জানান।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.