আস্থা ভোটে জিতলেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পররিকর

0
100

পানজিম: শেষরক্ষা হল। আস্থা ভোটে জিতলেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পররিকর। ৪০ সদস্যের গোয়া বিধানসভায় ২২টি ভোট পেয়েছেন পররিকর। আস্থা প্রমাণ করার জন্য তাঁর দরকার ছিল ২১ ভোট।

গোয়া বিধানসভা নির্বাচনে ১৩টি আসন পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিল বিজেপি। অন্যদিকে কংগ্রেস ১৭টি আসন জিতে প্রথম স্থানে ছিল কংগ্রেস। কিন্তু বিজেপি দুই আঞ্চলিক দলের ৬ বিধায়ক ও ৩ নির্দল বিধায়কের সমর্থন নিয়ে ম্যাজিক ফিগার পেরিয়ে যায়। কংগ্রেস ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছানোর জন্য সমর্থন জোগাড়ের তোড়জোড় শুরু করার আগেই রাজ্যপালের কাছে মনোহর পররিকরের নেতৃত্বে সরকার গড়ার দাবি জানায় বিজেপি। রাজ্যপাল পররিকরকে শপথ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান।

শপথ গ্রহণে স্থগিতাদেশ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দারস্থ হয় কংগ্রেস। শীর্ষ আদালত শপথ গ্রহণের উপর স্থগিতাদের দিতে রাজি না হলেও রাজ্যপালের দেওয়া ১৫ দিনের সময় সীমাকে এগিয়ে এনে বৃহস্পতিবারের মধ্যে পররিকরকে আস্থা প্রমাণের জন্য নির্দেশ দেয়। ফলে শপথ নিতে কোনো বাধা না থাকায় গত মঙ্গলবার চতুর্থবারের মতো গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন মনোহর পররিকর। তাঁর সঙ্গে শপথ নেন ৯জন মন্ত্রীও। শেষ পর্যন্ত আস্থা ভোটেও জয়লাভ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। ভোটাভুটিতে কংগ্রেস ১৬টি সমর্থন জোগাড় করতে সক্ষম হয়। ভোটের সময় দলের এক বিধায়ক ভোটদানে বিরত থাকেন। 

আস্থা ভোটে জেতার পর কংগ্রেসকে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা ভেঙ্কাইয়া নাইডু। তিনি বলেন, এই হার থেকে শিক্ষা নিক কংগ্রেস। অন্য‌দিকে কংগ্রেস নেতা দিগ্বীজয় সিং টুইট করেন মন্তব্য করেছেন,‘‘ গোয়ার মানুষ বিজেপিকে হারিয়ে দিয়েছে, কিন্তু যারা বিজেপি বিরোধী ভোট পেয়ে জিতেছে তারা গোয়াকে বিজেপির হাতে তুলে দিল।

মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে পররিকরের শপথ নেওয়ার দিনই এর প্রতিবাদে পথ নামেন বেশ কিছু মানুষ। হ্যাসট্যাগ #NotMyCM ব্যবহার করে সোশাল মিডিয়াতেও প্রচার শুরু হয়।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here