তিতিবিরক্ত! ভোটের মুখে দল ছাড়লেন গোয়ার তৃণমূল সাধারণ সম্পাদক

0
abhishek-banerjee-thakurnag
অভিষেকের গোয়া সফরের মধ্যেই দল ছাড়লেন গোয়ার সাধারণ সম্পাদক। প্রতীকী ছবি

পানাজি: সাধারণতন্ত্র দিবসর দিনই দল ছাড়লেন গোয়া তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক ইয়াতিশ নায়েক। তৃণমূলের প্রতি তিনি যে তিতিবিরক্ত, সে কথাও ইস্তফাপত্রেই লিখে দিয়েছেন তিনি।

গত বছর কলকাতায় এসে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন ইয়াতিশ। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি গোয়ায় ভোটগ্রহণ। তার কয়েক সপ্তাহ আগে, বুধবার দলের প্রাথমিক সদস্যপদ ছাড়তে চেয়ে গোয়ার এই আইনজীবী নেতা আবেদন করেছেন গোয়া তৃণমূলের রাজ্য সভাপতিকে। চিঠিতে জানিয়ে দিয়েছেন, তৃণমূল গোয়ায় যে ধরনের রাজনীতি করছে, তাতে তিনি থাকতে চান না।

ভোটের মুখে তাঁর এই ইস্তফাকে ঘিরে অস্বস্তি বেড়েছে ঘাসফুল শিবিরে। দল ছাড়া প্রসঙ্গে ইয়াতিশ স্পষ্ট করেই বলেছেন, “রাজনীতি মানে আমার কাছে রাজ্য ও রাজ্যবাসীর সেবা করা। আমি নীতির সঙ্গে আপোষ করতে চাই না। তবে দল যে ভাবে কাজ করছে তা দেখে, আমি দলের সদস্য হয়ে থাকার কোনো উপযুক্ত কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। এই সমস্ত কিছুর মধ্য দিয়ে যাওয়ার জন্য আমি অপমানিত, ক্লান্ত এবং হতাশা বোধ করছি”।

একটি সূত্রের দাবি, দলীয় প্রার্থীদের প্রথম দু’টি তালিকা থেকে বাদ পড়ার পর পদত্যাগ করলেন ইয়াতিশ। তবে তৃণমূল তাঁকে প্রার্থী করার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরও তাঁর পদত্যাগ তাৎপর্যপূর্ণ।

উল্লেখ্য, তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এখন গোয়ায় রয়েছেন। এ দিনই তাঁর কলকাতায় ফেরার কথা। গত ১৮ জানুয়ারি তার উপস্থিতিতেই আরও ১২ জনের সঙ্গে ইয়াতিশকে সাধারণ সম্পাদকের পদ দেওয়া হয়।

আরও পড়তে পারেন:

প্রত্যাখ্যান তিন জনেরই! এই ‘পদ্ম’ কি পছন্দ নয় বাংলার?

হাইড অ্যান্ড সিক ফিলস: পার্লের সম্ভারে নতুন সংযোজন

‘উনি গুলাম নয়, আজাদ থাকতে চান,’ বুদ্ধদেবের পদ্ম-প্রত্যাখ্যানকে কুর্নিশ করে গুলাম নবীকে খোঁচা দিলেন জয়রাম রমেশ

কেরলে উদ্বেগজনক বৃদ্ধি, তবুও দেশে ৩ লক্ষের নীচেই থাকল দৈনিক সংক্রমণ, পর পর দু’দিন কমল সক্রিয় রোগী

দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর নাম নিয়ে ফের পৃথক রাজ্যের উসকানি উত্তরবঙ্গে

বাকি দেশে করোনা যখন কমছে, তখন উদ্বেগের পরিস্থিতি কেরলে, প্রতি দু’জনের মধ্যে একজনই পজিটিভ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন