খবর অনলাইন ডেস্ক: সাইবার প্রতারকরা এখন কোভিড-১৯ (Covid-19) টিকার নামে লোক ঠকানোর নতুন ব্যবসা ফেঁদেছে। শেষ কয়েক দিনে ভোপাল সাইবার সেল এ ধরনের একাধিক অভিযোগ পেয়েছে। যেখানে অভিযোগকারীরা দাবি করেছেন, জলদি টিকাকরণের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাঁদের কাছে ফোন এসেছিল।

কী বলছে সাইবার সেল

সাইবার প্রতারকরা টিকা নেওয়ার জন্য আগাম স্লট বুকিংয়ের জন্য প্রস্তাব দিচ্ছে। এএসপি রজত সাকলেচা জানান, তড়িঘড়ি টিকাকরণের জন্য প্রতারকরা নাম নথিভুক্তিকরণের প্রস্তাব দিয়েছে অভিযোগকারীদের। বিনিময়ে তাঁদের কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশনের খরচ আদায়ে ব্য়াঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিবরণও দাবি করেছে প্রতারকেরা। তবে অভিযোগকারীরা সতর্ক হয়ে যাওয়ায় কারোরই টাকা-পয়সা খোয়া যায়নি। কিন্তু এ ধরনের ভুয়ো প্রতিশ্রুতি চক্রের শিকার হয়ে যেতে পারেন যে কেউ। এর জন্য সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, এ ধরনের ফোন পাওয়ার পর সাধারণ মানুষ যেন নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য-সহ অন্য কোনো ব্যক্তিগত তথ্য প্রতারকদের হাতে না তুলে দেন। পাশাপাশি এ ধরনের প্রস্তাবে কোনো অ্যাপ ডাউনলোডের পরামর্শও দেওয়া হয়। নিরাপদে থাকতে সোশ্যাল মিডিয়া, ই-মেল অথবা টেক্সট মেসেজে আসা এ ধরনের কোনো লিঙ্কে ক্লিক করতেও নিষেধ করেছে পুলিশ।

ভ্যাকসিনের প্রত্যাশা

করোনাভাইরাস মহামারি (Coronavirus pandemic) মোকাবিলায় বিশ্বব্যাপী ভ্যাকসিন আবিষ্কারের আশাব্যঞ্জক খবরে অনেকেই মধ্যেই তা হাতে পাওয়ার প্রত্যাশা তুঙ্গে। ব্রিটেন, রাশিয়া এবং আমেরিকায় শুরু হয়েছে টিকাকরণ। কিন্তু ভারতে এখনও তা অধরা। এই চাহিদাকেই পুঁজি করে প্রতারকরা বাজারে নেমে পড়েছে।

এই ভ্যাকসিন কেলেঙ্কারিগুলির অন্যতম ঝুঁকিগুলি হল বিদেশ থেকে ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি। অন্যটি ভারতে টিকাদান শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় এড়ানোর জন্য ভুয়ো ‘প্রি বুকিং’ সুবিধা।

কী ভাবে চলছে প্রতারণা

ভোপালের এক ব্যবসায়ী অভিযোগ করেছেন, কোভিড-১৯ টিকার পেতে নাম নথিভুক্তির জন্য তাঁর কাছে একটি ফোন আসে। তাঁকে বলা হয়, মাত্র ৫০০ টাকার বিনিময়ে নাম লেখানো সম্ভব।

প্রতারকরা এমনও দাবি করে, ভারতে ভ্যাকসিন পৌঁছানোর পর তার দাম বেড়ে কয়েক হাজার অথবা লক্ষ টাকায় ঠেকতে পারে। ফলে অগ্রিম নাম লিখিয়ে রাখলে কম খরচেই তা পাওয়া যাবে।

ফোনের অপরপ্রান্ত থেকে ওই ব্যবসায়ীকে একটি ওটিপি পাঠিয়ে বলা হয়, নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য জানাতে। তখনই সন্দেহ হয় ব্যবসায়ীর। তিনি সাইবার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

সতর্ক করেছিল ইন্টারপোল

হাতে-হাতে অথবা অনলাইনে নকল কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন (Covid-19 vaccines) বিক্রি করার ফাঁদ পাতছে ওষুধ জাল করার চক্র। স্বভাবতই এখনই সতর্ক না হলে নকল ভ্যাকসিনে ছেয়ে যেতে পারে বাজার। এ বিষয়ে ভারত-সহ রাষ্ট্রসঙ্ঘের ১৯৪টি দেশকে সতর্ক করে দিয়েছিল ইন্টারপোল (Interpol)।

আরও পড়তে পারেন: সক্রিয় হচ্ছে জাল ভ্যাকসিন চক্র, সতর্ক করল ইন্টারপোল

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন