lynching

ফরিদাবাদ: অভিযুক্তের আইনজীবীকে সাহায্য করছেন সরকারি কৌসুলি। অবিলম্বে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য হরিয়ানা সরকার, অ্যাডভোকেট জেনারেলের অফিস এবং বার কাউন্সিলের অফিসে চিঠি দিলেন জুনেইদ খান গণপিটুনি মামলার বিচারক।

অতিরিক্ত জেলা এবং সেশন বিচারক ওয়াইএস রঠৌরের এজলাসে শুনানি চলছে জুনেইদ খান গণহত্যা মামলার। ইংরেজি দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের রিপোর্ট অনুযায়ী, অতিরিক্ত অ্যাডভোকেট জেনারেল নবীন কৌশিকের বিরুদ্ধে অভিযুক্তের আইনজীবীকে সাহায্য করার অভিযোগ এনেছেন রঠৌর।

গত ২৪ এবং ২৫ অক্টোবর এই মামলার শুনানি ছিল। রঠৌরের অভিযোগ এই শুনানির আগে, অভিযুক্ত নরেশ কুমারের আইনজীবীকে সাহায্য করেছেন কৌশিক। কী ভাবে সাহায্য করেছেন তাও বলেছেন রঠৌর। প্রত্যক্ষদর্শীদের কী রকম প্রশ্ন করা যেতে পারে তা বলে দিয়েছে কৌশিক।

রঠৌরের কথায়, “এটা নিজের চাকরির প্রতি অবমাননাজনক। এরকম কাজ একজন আইনজীবীর মূল্যবোধের বিরোধী।” সরকারি কৌসুলি যদি অভিযুক্তের পক্ষ নিয়ে নেয়, তাহলে ভুক্তভোগীদের মধ্যে নিরাপত্তাহীনতা গ্রাস করবে বলেও অভিযোগ করেন রঠৌর।

তবে এই অভিযোগ সম্পূর্ণ খণ্ডন করেছেন কৌশিক। তিনি বলেন, “আমার সঙ্গে এই মামলার কোনো সম্পর্কই নেই। কৌশিকের বিরুদ্ধে অভিযোগের ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন হরিয়ানার অ্যাডভোকেট জেনারেল বলদেব রাজ মহাজন। তবে অভিযোগ প্রমাণিত হলে কৌশিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য গত ২২ জুন, ঈদের বাজার করে বাড়ি ফেরার পথে দিল্লির ট্রেনে গণপিটুনির শিকার হয় বছর ষোলোর যুবক জুনাইদ খান-সহ আরও চার জন। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় জুনাইদের। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের মধ্যে চারজনের জামিন হয়ে গিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here