lpg

ওয়েবডেস্ক: প্রথমে প্রস্তাব ছিল, প্রতি মাসে ৪ টাকা করে বাড়তে চলেছে এলপিজি সিলিন্ডারের দাম। সেই লক্ষ্যে তৈরি হচ্ছিল নয়া প্রস্তাবনাও। কিন্তু অবশেষে সাফ জানিয়ে দিল সরকার- এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, এলপিজি সিলিন্ডারের মূল্যবৃদ্ধির সম্ভাবনা অদূর ভবিষ্যতে নেই বললেই চলে!

হঠাৎ কেন নিজের সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে এল সরকার?

সরকারি তরফে জানানো হয়েছে, উজ্জ্বলা প্রকল্পই এর মূল কারণ। সরকার উজ্জ্বলা প্রকল্প শুরু করেছিল দেশের গরিব মানুষকে এলপিজি সিলিন্ডার সুলভে সরবরাহের জন্য। সেই প্রকল্পের রূপায়ন যাতে সহজ হয়, তার জন্য আয়ের ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দিয়ে ভরতুকি ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধও জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু এলপিজি সিলিন্ডারের মূল্যবৃদ্ধি প্রতি মাসে ৪ টাকা করে হলে তার ব্যয়ভার বহন করা গরিবদের পক্ষে অসম্ভব হয়ে উঠবে। সে ক্ষেত্রে, সরকারের এই সিদ্ধান্ত উজ্জ্বলা প্রকল্পের বিরোধী প্রস্তাবনায় পরিণত হবে। তাই দেশের দরিদ্র মানুষদের মুখ চেয়েই প্রতি মাসে এলপিজি সিলিন্ডারের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাবটি রদ করা হল, তেমনটাই জানাচ্ছে কেন্দ্র।

এর আগে ভরতুকি তুলে নিতে ২০১৬ সালের জুন মাস থেকেই দাম বাড়ানোর জন্য রাষ্ট্রায়ত্ত তেল সংস্থাগুলোকে নির্দেশ দিয়েছিল মোদী সরকার। সেই নির্দেশ মেনে সংস্থাগুলোও ভ্যাট বাদ দিয়ে প্রতি মাসে ২ টাকা করে এলপিজি সিলিন্ডারের দাম বাড়াতে থাকে। হিসাব বলছে, সেই মর্মে সাকুল্যে ১০ বার এলপিজি সিলিন্ডারের দাম বেড়েছিল। এর পর চলতি বছরে কেন্দ্র সেই মূল্যবৃদ্ধি দ্বিগুণ করার নির্দেশ দেয়। যার জেরে সংস্থাগুলি প্রতি মাসে ৪ টাকা করে এলপিজি সিলিন্ডারের দাম বাড়াতে থাকে। যদিও গত অক্টোবরে সেই নির্দেশ প্রত্যাহার করার পর থেকে সংস্থাগুলো আর এলপিজি সিলিন্ডারের দাম বাড়ায়নি।

মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্ত দেশবাসীর পক্ষে স্বস্তির খবর হলেও রাজনৈতিক মহলে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে জোর জল্পনা-কল্পনা। গুজরাত ভোটে যে ভাবে ঘাড়ের উপরে নিশ্বাস ফেলেছে কংগ্রেস, তাতে ভয় পেয়েছে বিজেপি- তেমনটাই অনুমান! ফলে, এখনই এলপিজি সিলিন্ডারের দাম না বাড়িয়ে ভোটব্যাঙ্ককে নিজের অনুকূলে রাখতে চাইছে সরকার- জল্পনা দাবি করছে সেরকমই!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here