কেন রাতারাতি বাতিল করা হল অমরনাথ যাত্রা? খোলসা করলেন রাজ্যপাল

0

ওয়েবডেস্ক: জম্মু-কাশ্মীরের ইতিহাসে এ রকম পরিস্থিতি কখনও আসেনি। রাজ্যে যখন সন্ত্রাসবাদের বাড়বাড়ন্ত ছিল, তখনও তীর্থযাত্রী এবং পর্যটকদের এ ভাবে রাজ্য ছেড়ে যেতে বলা হয়নি। কিন্তু এ বার যেন সব কিছুই অন্য রকম হচ্ছে। গত কয়েক দিনে উপত্যকায় বাড়তি জওয়ান নিয়ে আসার ব্যাপারে নানা রকম গুজব ছড়িয়েছে। এ বার রাতারাতি অমরনাথ যাত্রা বাতিল হওয়ায় সেই গুজবের আগুনে আরও ঘি ঢালা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কাশ্মীরের রাজনীতিকদের নিয়ে বৈঠক করলেন রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক। বুঝিয়ে দিলেন, কেন এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার রাতে মালিকের সঙ্গে দেখা করেন উপত্যকার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রথম সারির নেতৃত্ব। সেখানে ছিলেন মেহবুবা মুফতি, শাহ ফয়জল, সাজ্জাদ লোন এবং ইমরান আনসারি। ওই বৈঠকে রাজনীতিকদের তিনি সাফ বলে দেন, অন্য কোনো কারণ নয়, শুধুমাত্র নিরাপত্তার খাতিরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে রাজ্যপালের অফিস থেকে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়। সেখানে বলা হয়, অমরনাথ যাত্রায় সম্ভাব্য হামলা চালানোর সঠিক প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। তাই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “শুধু শুধু মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি এবং গুজব ছড়ানো হচ্ছে। নিরাপত্তার খাতিরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর সঙ্গে অন্য সমস্যাগুলি মিশিয়ে দেওয়া উচিত নয়।”

আরও পড়ুন কুলদীপ সেঙ্গারের পক্ষে প্রকাশ্য সভায় মুখ খুলে বিতর্কে আরও এক বিজেপি বিধায়ক

উপত্যকায় বাহিনীর বাড়বাড়ন্তে মানুষের মধ্যে যে নানা রকম বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে, সেগুলির মধ্যে অন্যতম সংবিধানের ৩৫এ ধারা বিলুপ্ত করে দেওয়া। এ রকম কোনো সিদ্ধান্ত নিলে উপত্যকায় যে আগুন জ্বলবে সে সতর্কতা আগেই দিয়েছেন মেহবুবা মুফতি। যদিও এ রকম জল্পনা সঠিক নয় বলে সাফ জানিয়েছেন রাজ্যপাল। আবার অনেকের মধ্যে হচ্ছে স্বাধীনতা দিবসে উপত্যকার সব গ্রাম পঞ্চায়েতে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের জন্যই এই বাড়তি বাহিনী নিয়ে আসা হয়েছে।

তবে কাশ্মীর যে এখন বিভ্রান্ত সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই বিভ্রান্তি দূর করতে পারে একমাত্র কেন্দ্র বা রাজ্যপালের তরফ থেকে দেওয়া বিবৃতি। আর সেই কারণেই সম্ভবত শুক্রবার রাতে বিবৃতি দিলেন রাজ্যপাল।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন