লকডাউন প্রত্যাহার নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়তো শনিবার

ফাইল ছবি

খবর অনলাইনডেস্ক: ১৪ এপ্রিলের পর গোটা দেশে যে একসঙ্গে লকডাউন (Lockdown) প্রত্যাহার করা হবে না, সেটা নিশ্চিত। কারণ বর্তমানে দেশের কিছু রাজ্যে পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগজনক, এমনকি কোথাও কোথাও ভয়াবহও। যদিও কিছু কিছু জায়গায় পরিস্থিতি তুলনায় ভালো। ফলে আংশিক ভাবে লকডাউন প্রত্যাহার করার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছে সরকার।

তবে লকডাউনের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত শনিবার নিতে পারে কেন্দ্র। ওই দিনই সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ফের এক বার বৈঠক করার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর।

গত সপ্তাহেই মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে এক দফা বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি ধাপে ধাপে লকডাউন ওঠানোর প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রীদের বলেন। কিন্তু সেই বৈঠকের পর থেকে দেশের পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে গিয়েছে।

মহারাষ্ট্র (Maharashtra), দিল্লি (Delhi), তামিলনাড়ু (Tamil Nadu), তেলঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। তুলনায় পরিস্থিতি ভালো পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal), বিহার, ওড়িশা, ছত্তীসগঢ়, গোটা উত্তরপূর্ব ভারতে।

আরও পড়ুন ভারতে করোনা-রোগীর সংখ্যা পাঁচ হাজার পেরোলো, মহারাষ্ট্রেই এক হাজার

কিছু দিন আগেই লকডাউন আরও দু’ সপ্তাহ বাড়িয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও (K Chandrashekhar Rao)। রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌতও (Ashok Gehlot) জানিয়েছেন, এখন লকডাউন তোলা উচিত নয়। একই দাবি করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যসচিবও।

গোটা দেশকে তিনটে জোনে ভাগ করে লকডাউন প্রত্যাহারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর যদিও বা লকডাউন প্রত্যাহার করা হয়, তা হলেও অন্তত চার সপ্তাহ স্কুল-কলেজ-সহ যে কোনো ধরনের জমায়েত বন্ধ রাখা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.