২০১৫ সালে ভারত-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ৭.৩ লক্ষ কোটি টাকা। ১০ বছর আগে অর্থাৎ ২০০৫ সালে এই পরিমাণ ছিল ২.৪ লক্ষ কোটি। ভারতে পণ্য ও পরিষেবা বিল পাস হওয়ায় দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য আরও বাড়বে। রবিবার এই আশা প্রকাশ করেছেন মার্কিন বাণিজ্য সচিব পেনি প্রিটজকার। সোমবার তিন দিনের ভারত সফরে আসছেন তিনি।

প্রিটজকার এদিন বলেন, এই মুহূর্তে মার্কিন মুলুকে ৭৩,৮৫৩ কোটি টাকা ভারতীয় বিনিয়োগ রয়েছে। ভারতীয় সংস্থাগুলিতে প্রায় ৫২ হাজার মানুষ কাজ করেন। অন্যদিকে ভারতে মার্কিন বিনিয়োগের পরিমাণ ১.৮ লক্ষ কোটি টাকা। তিনি আরও বলেন, জিএসটি-র মত সংস্কারমূলক পদক্ষেপের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘ভারতের বাণিজ্যের পরিবেশের উন্নতির জন্য যে উচ্চাকাঙ্খী প্রয়াস’ নিচ্ছেন, ওয়াশিংটন তাকে স্বাগত জানাচ্ছে।

তবে মার্কিন বাণিজ্য সচিবের মতে, ভারতের এই নতুন কর জমানা কেবল একটি পদক্ষেপ মাত্র। এখনও অনেক পথ পেরনো বাকি। তার মধ্যে ‘কর নীতির অস্পষ্টতা’ কাটানো যেমন রয়েছে, তেমনই রয়েছে ‘মেধাস্বত্ব আইনে অপর্যাপ্ত সুরক্ষা এবং প্রয়োগ’।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here