modi travels in sea plane

অমদাবাদ: নিরাপত্তাজনিত কারণে বাতিল করতে হয়েছে শেষ দিনের রোড-শো। কিন্তু তাতে কী! বিজেপি’র কাছে তৈরি ছিল ‘প্ল্যান বি’। সেই পরিকল্পনা মোতাবেকই ভারতের প্রথম সমুদ্রবিমানে (সি প্লেন) উড়লেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

তাঁর আমলে গুজরাত তথা ভারতের কত উন্নয়ন হয়েছে, মানুষের কাছে সেটা দেখানোর জন্যই এই সমুদ্রবিমানে যাত্রার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ন’টায় অমদাবাদের সবরমতি ঘাট থেকে ১৮০ কিমি দূরের ধারোই জলাধারের উদ্দেশে যাত্রা করেন মোদী। এখান থেকে মহেসানার অম্বাজি মন্দির দর্শন করে প্রচার শেষ করবেন মোদী। একই ভাবেই অমদাবাদ ফিরবেন তিনি।

৯ থেকে ১৫ জন যাত্রীধারণের ক্ষমতাসম্পন্ন এই বিমান নদীতেও ভাসতে পারে। আকাশে ওড়ার জন্য মাত্র তিনশো মিটার দৈর্ঘের রানওয়ের প্রয়োজন হয়। ভারতের প্রথম সমুদ্রবিমানকে নিয়ে ঢালাও প্রচারে নেমেছে বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি দিনটাকে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়ে বলেন, “ভারতের যান পরিবহণের ক্ষেত্রে আজ একটা বিপ্লব ঘটে গেল।”

সমুদ্রবিমানে যাত্রার ব্যাপারে সোমবারই টুইট করে জানান মোদী। তিনি বলেন, “আগামী কাল আমি অমদাবাদ থেকে ধারোই জলাধার যাব সি প্লেনে। সেখান থেকে অম্বাজি গিয়ে মা অম্বাজির কাছে প্রার্থনা করব। রেল, সড়ক, বিমান পরিষেবার পাশাপাশি জলপথ পরিবহণেও উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ করেছে আমাদের সরকার।”

উল্লেখ্য, আগামী এক বছরের মধ্যে দশটা এই রকম বিমান সারা দেশে চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্পাইসজেট। জাপানের একটি সংস্থার কাছ থেকে আরও একশোটা এই রকম বিমান কেনার পরিকল্পনা করেছে সরকার।

দেখে নিন মোদীকে নিয়ে সমুদ্রবিমানের পাড়ি দেওয়ার মুহূর্তটি

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here