‘জ্ঞানবাপী মসজিদে ঠিক কোথায় শিবলিঙ্গ পাওয়া গিয়েছে’, সুপ্রিম কোর্টের প্রশ্নে সরকারি উত্তর- ‘আমরা রিপোর্টটা দেখিনি’

0
জ্ঞানবাপী মসজিদ। প্রতীকী ছবি

জ্ঞানবাপী মসজিদ: ‘শিবলিঙ্গ’ এলাকা সুরক্ষিত থাকুক কিন্তু নামাজ বন্ধ করবেন না, বলল সুপ্রিম কোর্ট।

নয়াদিল্লি: জ্ঞানবাপী মসজিদের ভিতরে ‘শিবলিঙ্গ’ ঠিক কোথায় পাওয়া গিয়েছে? মঙ্গলবার উত্তরপ্রদেশ সরকারের কাছে জানতে চাইল সুপ্রিম কোর্ট।

এ দিন মসজিদ কমিটির একটি আবেদনের শুনানি করে সর্বোচ্চ আদালত। সোমবার মসজিদ চত্বরের ভিতরে ভিডিওগ্রাফি করার সময়সীমা শেষ হওয়ার পর এ দিন প্রশাসনের কাছে এই প্রশ্ন করে সুপ্রিম কোর্ট। বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় বলেন, “শিবলিঙ্গটি ঠিক কোথায় পাওয়া গিয়েছিল”?

উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষে উপস্থিত সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা উত্তর দেন, “আমরা রিপোর্টটা দেখিনি”। এ ব্যাপারে বিশদ তথ্যের জন্য আগামী বুধবার পর্যন্ত সময় চেয়ে নেন সলিসিটর জেনারেল।

তবে একই সঙ্গে তিনি জানান, এমন জায়গায় ‘শিবলিঙ্গ’ পাওয়া গিয়েছে, যদি কেউ নামাজ পড়তে আসে, তা হলে সেটা তাঁর পায়ে স্পর্শ করলে আইনশৃঙ্খলার সমস্যা হতে পারে। সেই সমস্যা এড়াতে জায়গাটা সিল করে দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়, ‘শিবলিঙ্গ’ একটি পুকুরে পাওয়া যায়, যা নামাজের আগে “ওয়াজু” বা শুদ্ধিকরণ আচারের জন্য ব্যবহৃত হয়।

এমন জবাবে সুপ্রিম কোর্ট বারাণসী জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের উদ্দেশে বলে, যদি ‘শিবলিঙ্গ’ পাওয়া যায়, তা হলে এলাকাটি সুরক্ষিত করা উচিত। তবে সেটা নামাজের জন্য মুসলমানদের মসজিদে আসায় বাধা দিয়ে নয়।

এর আগে হিন্দু আবেদনকারীরা একটি চাঞ্চল্যকর দাবি করেন। তাঁরা বলেন, জ্ঞানবাপী মসজিদ চত্বরে একটি পুকুরে ‘শিবলঙ্গ’ বা ভগবান শিবের প্রতীক পাওয়া গিয়েছে। স্থানীয় আদালত এলাকাটি সিল করার নির্দেশ দেয়। মসজিদটি বারাণসীর বিখ্যাত কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের পাশে অবস্থিত। পাঁচ জন হিন্দু মহিলা সারা বছরই মসজিদের দেওয়ালে খদিত মূর্তি পুজো করার অনুমতি চান। বর্তমানে বছরে এক বারই পুজো করার অনুমতি রয়েছে। এর আগে গত ৬ মে একদফা সমীক্ষা চলে মসজিদে। তার পর মসজিদের ভিতরে ছবি তোলা নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত। এরই মধ্যে সংযোজন ‘শিবলিঙ্গ’ পাওয়ার দাবি।

যদিও মুসলিম আবেদনকারীরা এই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। তাঁদের দাবি, যেটাকে ‘শিবলিঙ্গ’ বলা হচ্ছে, সেটা আসলে একটা ‘ঝরনা’। এ দিনের শুনানিতে তাঁদের প্রশ্ন, সমীক্ষক কমিটির রিপোর্টই যখন জমা পড়েনি, তা হলে কী করে জায়গাটি সিল করার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় আদালত?

আরও পড়তে পারেন:

পল্লবী দে খুনের মামলায় গ্রেফতার লিভ-ইন সঙ্গী সাগ্নিক চক্রবর্তী

চাদরে রক্তের দাগ! বিজয়গড়ের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার কম্বল জড়ানো পচা দেহ

ছাত্রনেতা আনিস খানের বাড়িতে অভিযান আইন মেনে হয়নি, হাইকোর্টে স্বীকার করে নিল রাজ্য

পল্লবী দে রহস্যমৃত্যুতে আরেক মোড়, মুখ খুললেন সাগ্নিকের প্রাক্তন ‘স্ত্রী’

মেধা তালিকায় নাম না থাকলেও মেয়েকে চাকরি, আদালতের সিবিআই তদন্তের নির্দেশে বিপাকে রাজ্যের মন্ত্রী

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন