নয়াদিল্লি: গোয়ায় মৃত অবস্থায় উদ্ধার বিজেপি নেত্রী সোনালি ফোগতের মৃত্যুর ঘটনায় একটি খুনের মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। নেত্রীর ভাই রিংকু ঢাকা দাবি করেছেন, দুই সহযোগীও তাঁর সঙ্গে গোয়ায় ছিলেন। তারাই খুন করেছে।

হরিয়ানার বিজেপি নেত্রী সোনালি ফোগত (Sonali Phogat)-এর পরিবার গোয়ায় তাঁর মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এবং সিবিআইয়ের তদন্তেরও দাবি করেছে। গতকাল রিংকু দাবি করেছিলেন, এফআইআর বা পুলিশ অভিযোগ দায়ের না করা পর্যন্ত পরিবার মৃত নেত্রীর পোস্টমর্টেম করার অনুমতি দেবে না। তাঁর দাবি, সোনালিকে খুন করেছে তাঁরই দুই সহযোগী। পরিবারের পক্ষ থেকে সিবিআই তদন্তও দাবি করা হয়েছে।

মৃতদেহ গোয়া মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে বলা হয়েছে, সোনালির শরীরের একাধিক জায়দায় ভোঁতা কিছু দিয়ে ‘আঘাত’-এর চিহ্ন মিলেছে। তাঁর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছে।

মৃত বিজেপি নেত্রীর ভাইয়ের দাবি

মৃত বিজেপি নেত্রীর ভাই রিংকু ঢাকা গত বুধবার বলেন, “আমি অঞ্জুনা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি। এটি একটি পূর্ব পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। তাঁর (সোনালির) ব্যক্তিগত সহকারী-সহ দু’জনকে নিয়ে আমাদের সন্দেহ রয়েছে। আমি তার মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত দাবি করছি। গোয়াতে পোস্টমর্টেম করার ব্যাপারে আমরা সন্তুষ্ট নই। আমরা চাই যে এটি আবার এমস-এ করা হোক”।

তিনি আর দাবি করেছেন, সন্দেহভাজন দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করতে রাজি হয়নি পুলিশ। তিনি আরও বলেন, “সবাই রাতে ফোনে তার সঙ্গে কথা বলেছিল, সবকিছু ঠিকঠাক ছিল… তার পর এটা কী ভাবে হল? এই সব পরিকল্পনা আগে থেকেই চলছিল, কিন্তু আমরা জানতে পারিনি। এই বিষয়টির সঠিক তদন্ত হওয়া উচিত”।

থানার বাইরে দাঁড়িয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা সংশ্লিষ্ট দুই অভিযুক্তের থেকে দূরে থাকতে বলেছিলাম। পরের দিনই হিসারে ফিরে যেতে বলেছিলাম। যদি তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা না হয়, আমরা গোয়াতে পোস্টমর্টেম করতে দেব না। গত ১৫ বছর ধরে বিজেপির নেত্রী ছিল সোনালি। আমরা তার জন্য ন্যায়বিচার চাই। প্রধানমন্ত্রীর কাছেও সাহায্যের আবেদন জানাব”।

সোনালির বোনের চাঞ্চল্যকর দাবি

মৃত বিজেপি নেত্রীর বোনের দাবি, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে যাওয়ার তত্ত্ব মানতে নারাজ তাঁদের পরিবার। এমনকী মৃত্য়ুর আগে ফোনে “কিছু ইঙ্গিত করেছিলেন” বলেও দাবি করেন তিনি।

সোনালির বোন রমন সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে বলেন, “আমার বোনের হার্ট অ্যাটাক হতে পারে না। সে খুব ফিট ছিল। আমরা সিবিআইয়ের কাছে সঠিক তদন্তের দাবি করছি। এ ভাবে হার্ট অ্যাটাকে তার মৃত্য়ু হয়েছে, এটা আমরা মানতে পারছি না। এ ধরনের কোনো রোগ বা সমস্যা তার আগে ছিল না”।

তাঁর চাঞ্চল্যকর দাবি, “মৃত্য়ুর আগের সন্ধ্যায় সে আমাকে ফোন করেছিল। হোয়াটসঅ্যাপে কথা বলতে চেয়েছিল। জানিয়েছিল কিছুটা উল্টোপাল্টা হচ্ছে। কিছু ক্ষণ পরে সে কলটা কেটে দেয়। তার পর থেকে ফোন করলেও রিসিভ করেনি”।

আরও পড়তে পারেন:

ঝাড়খণ্ডে রাজনৈতিক ডামাডোল! টলোমলো মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের কুর্সি, দিল্লি থেকে রাঁচিতে পৌঁছোলেন রাজ্যপাল

খোঁজ মিলছে না মানিক ভট্টাচার্যের! ‘লুক আউট’ নোটিশ জারির কথা ভাবছে ইডি

ফের নিয়োগ-দুর্নীতির অভিযোগ, এ বার সমবায় ব্যাঙ্কে চাকরি বেনিয়মে নাম জড়াল মন্ত্রীর

উদ্যান পালন সপ্তাহে ফুল-ফলের গাছ, বীজ বিতরণ জয়নগরে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন