চণ্ডীগড়: হরিয়ানা সরকার তার দেওয়া কথা রাখেনি, সাক্ষী মালিকের এই অভিযোগের চব্বিশ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে পড়ল হরিয়ানা সরকার।

বিতর্কিত মন্তব্য করে শিরোনামে থাকা রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অনিল বীজ রবিবার সাক্ষী মালিকের সব অভিযোগ খণ্ডন করেছেন। সাক্ষীকে আগেই আড়াই লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, “অলিম্পিক থেকে ফিরে সাক্ষী যে দিন রাজ্যে পা দিল সে দিনই তাঁকে আড়াই লক্ষ টাকার চেক দেওয়া হয়েছিল।” সাক্ষীকে দেওয়া চাকরির প্রতিশ্রুতির ব্যাপারে তিনি বলেন, “চাকরির ব্যাপারে অদ্ভুত দাবি ছিল সাক্ষীর। তিনি মহর্ষি দয়ানন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি চেয়েছেন। এই ব্যাপারে একটু সময় লাগে। সাক্ষীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ডিরেক্টর অফ স্পোর্টস’ হিসেবে নিযুক্ত করা হবে।” তিন চার দিনের মধ্যেই তাঁকে নিয়োগপত্র দেওয়া হবে বলে জানান বীজ।

বীজ আরও দাবি করেন, সম্ভবত কারও উস্কানিতেই এমন টুইট করেছিলেন সাক্ষী। তিনি বলেন, “এ রকম টুইট করার জন্য সাক্ষীকে নিশ্চয়ই কেউ উস্কানি দিয়েছিল। আসল রাজনীতির থেকে ক্রীড়া রাজনীতির শিকড় আরও গভীরে।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here