ramdev

নয়াদিল্লি: মোদী সরকারের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতার কথা সবারই জানা। মোদী জমানাতেই তাঁর ব্র্যান্ডের বাড়বাড়ন্ত। বিরোধীদের অভিযোগ মোদী সরকার তাঁকে বিশেষ সুবিধা পাইয়ে দেয়। কিন্তু তিনি অবশ্য এই সব অভিযোগ অস্বীকার করলেন। সাফ জানিয়ে দিলেন, মোদী সরকারের থেকে এক পয়সাও সুবিধা তিনি নেননি। তিনি যোগগুরু বাবা রামদেব।

‘আপ কি আদালত’ নামক একটি টিভি শোয়ে এই কথা বলেছেন রামদেব। শনিবার এই শো সম্প্রচারিত হয়েছে। সেখানে তিনি বলেন, “আমি জোর গলায় বলতে পারি যে মোদী সরকারের থেকে এক পয়সাও সুবিধা নিইনি আমি। সরকারের কাজে কোনো বাধাও সৃষ্টি করিনি কখনও। রাজনীতি আমার কাজ নয়, রাজনীতি আমার লক্ষ্য। রাজনীতি থেকে খারাপ লোকদের তাড়ানোর জন্যই রাজনীতিতে যোগ দিয়েছি আমি। তবে আমার সংস্থার জন্য নিজের রাজনৈতিক সত্তাকে কখনোই কাজে লাগাব না।”

রামদেব বলেন, আগামী চার বছরের মধ্যে ভোগ্যপণ্যের বাজারে (এফএমজিসি) পৃথিবীর বৃহত্তম ব্র্যান্ড হবে পতঞ্জলি। এই মুহূর্তে ভারতের বৃহত্তম এফএমজিসি ব্র্যান্ড ইউনিলিভার। ২০১৮-১৯ আর্থিক বর্ষে ইউনিলিভারকে টপকে যাবে পতঞ্জলি, এমনই জানান রামদেব।

হরিদ্বার এবং তেজপুরের পাশাপাশি নাগপুর, নয়ডা, ইনদওর এবং অন্ধ্রেও নতুন ইউনিট খুলবে পতঞ্জলি। নয়ডায় চারশো কোটি টাকার বিনিময়ে সাড়ে চারশো একরের জমি কিনেছেন তিনি। এই প্রসঙ্গে রামদেব বলেন, “কেউ আমায় কোনো জমি দান করেনি। আমি পুরো টাকা দিয়ে নিজের জমি কিনেছি।”

এর পাশাপাশি জিএসটি’র হার কমানোর জন্য অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির কাছে আবেদনও করেছেন রামদেব। এই মুহূর্তে ঘি এবং মাখনের ওপরে বারো শতাংশ হারে জিএসটি নেওয়া হচ্ছে। সেই হার কমানোর দাবি তাঁর। সেই সঙ্গে চিনের জিনিস বর্জন করারও ডাক দিয়েছেন তিনি। তবে চিনে ভারতের জিনিস রফতানি করার পক্ষে জোর সওয়াল করেছেন যোগগুরু।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here