হাসন (কর্নাটক): নিজের দুই নাতিকে জায়গা ছেড়ে দিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়লেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবেগৌড়া। যদিও এই কান্না নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছে বিজেপি।

কর্নাটকের হাসন লোকসভা কেন্দ্র থেকে পাঁচ বার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছে দেবেগৌড়া। ওই কেন্দ্রের বর্তমান সাংসদও তিনি। কিন্তু এ বার ভোটে না দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। পরিবর্তে হাসন আসনটি নিজের এক নাতি প্রাজ্বল রেবনাকে ছেড়ে দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি জেডিএসের আধিপত্য থাকা মাণ্ড্য আসনে প্রার্থী করেছেন আরও এক নাতি নিখিল কুমারকে।

দুই নাতিকে রাজনীতিতে এনেই হাসনের সভায় কাঁদতে দেখা যায় দেবেগৌড়াকে। দেবেগৌড়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ, নিজের পরিবারকেই রাজনীতিতে তুলে ধরেন তিনি। এই অভিযোগ খণ্ডাতে গিয়েই কান্নাকাটি করে ফেলেন তিনি। তিনি বলেন, “এতো অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে। আমি না কি নিজের পরিবারকে তুলে ধরি। আমার যা কিছু করি, নিজের দলের নেতা বিধায়কদের কথা মতো চলি।”

তবে বিরোধীরা যে অভিযোগ করে, সেটাও কিন্তু খুব ফেলনা নয়। দেবেগৌড়ার দুই ছেলের একজন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী, অন্য জন রাজ্যের ক্যাবিনেট মন্ত্রী। এর পর দুই নাতি রাজনীতিতে। যে আসনে দুই নাতি প্রার্থী হয়েছেন, সেখান থেকে তাঁরা যে জিতেই যাবেন, সে কথা কার্যত বলার অপেক্ষা রাখে না।

উল্লেখ্য, কর্নাটকে লোকসভা আসন বণ্টন হয়েছে জেডিএস এবং কংগ্রেসের মধ্য। কংগ্রেস লড়বে ২০টি আসনে এবং জেডিএস আটটি আসনে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here