puri rain
ভাসছে পুরী। ছবি: ফেসবুক

ওয়েবডেস্ক: বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রামের পর এ বার আকাশভাঙা বর্ষণের কবলে পড়ল ওড়িশার পুরী। এর ফলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে শহরের জনজীবন।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটা পর্যন্ত পুরীতে বৃষ্টি হয়েছে ৩৯৪ মিমি। এত অল্প সময়ে এই পরিমাণ বৃষ্টি শেষ বার কবে হয়েছিল আন্দাজ করা যাচ্ছে না। এই বৃষ্টির ফলে শহরের অধিকাংশ জায়গাই জলমগ্ন। বানভাসি হয়ে পড়েছে শহরের আশেপাশের গ্রামগুলি।

আরও পড়ুন বাঁকুড়ায় জলের তোড়ে ভেসে গেল আস্ত দু’তলা বাড়ি, দেখুন ভিডিও

তবে শুধু পুরীই নয়, নিম্নচাপের প্রভাবে প্রবল বৃষ্টির কবলে পড়েছে গোটা ওড়িশা। ভুবনেশ্বরে ১৭৩ মিমি বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে, পারাদ্বীপে বৃষ্টি হয়েছে ১২৮ মিমি।

এ দিকে রবিবারের রেকর্ড ভাঙা বৃষ্টির পরে সোমবারও ভালোই বৃষ্টি হয়েছে বাঁকুড়ায়। গত ২৪ ঘণ্টায় বাঁকুড়ায় আরও ৫৪ মিমি বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালের পরে সে ভাবে বৃষ্টি না হলেও এখনও ফাঁড়া কাটেনি বলে মনে করছে আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা। কারণ যে নিম্নচাপটি বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হয়েছে সেটি দিঘা উপকূল দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করে উত্তর-পশ্চিমে সরবে। অর্থাৎ তার গতিপথে পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া এবং ঝাড়খণ্ড পড়বে। আগামী দু’দিন ওই সব অঞ্চলে ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করে রেখেছে আবহাওয়া দফতর।

আরও পড়ুন বানভাসি বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, দেখুন ছবির গ্যালারি

দক্ষিণবঙ্গের অন্যত্রও বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টি পেতে পারে বলে জানানো হয়েছে আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে। তবে এই বৃষ্টির ফলে দক্ষিণবঙ্গে বর্ষার ঘাটতি অনেকটাই কমে গিয়েছে। বাঁকুড়া জেলায় বৃষ্টি এখন ১৭ শতাংশ বাড়তি। দক্ষিণবঙ্গের জন্য আগস্ট আর সেপ্টেম্বরের যা পূর্বাভাস, তাতে এ বর্ষায় ঘাটতি নয়, বাড়তি বৃষ্টি নিয়েই শেষ করতে পারে দক্ষিণবঙ্গ।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here