শিমলা: পশ্চিমবঙ্গের লক্ষ্মীর ভান্ডারের ধাঁচে হিমাচল প্রদেশে নতুন প্রকল্প চালুর প্রতিশ্রুতি দিল কংগ্রেস। চলতি বছরের শেষে ওই রাজ্যে বিধানসভা ভোট। তার আগে হিমাচল প্রদেশ কংগ্রেসের তরফে সোমবার ঘোষণা করা হয়েছে, আগামী বিধানসভা ভোটে জিতে সে রাজ্য ক্ষমতায় এলে রাজ্যের ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সি প্রত্যেক মহিলাকে মাসে ১,৫০০ টাকা দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, বাংলার চালু হওয়া লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে প্রত্যেক পরিবারের গৃহকর্ত্রীকে মাসে ৫০০ টাকা দেওয়া হয়। অর্থাৎ, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের মতো শুধুমাত্র প্রতি পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠ মহিলারা নয়, বার্ধক্য ভাতার আওতায় আসেন না, এমন প্রত্যেক মহিলাকেই প্রস্তাবিত প্রকল্পের সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সনিয়া গান্ধীর দল। হিমাচলের ভারপ্রাপ্ত কংগ্রেসে নেতা তথা ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বঘেল এই ঘোষণা করেছেন।

পাশাপাশি, হিমাচল প্রদেশে ক্ষমতায় গেলে প্রত্যেক পরিবারকে ৩০০ ইউনিট বিদ্যুৎ বিনামূল্যে দেওয়ারও অঙ্গীকার করেছে কংগ্রেসে। বিধানসভা ভোটকে ‘পাখির চোখ’ করে ইতিমধ্যেই সে রাজ্যের বিজেপি সরকার পরিবারপিছু ১২৫ ইউনিট বিনামূল্যে বিদ্যুৎ দেওয়ার প্রকল্প চালু করেছে।

সম্প্রতি আম আদমি পার্টি (আপ)-র অরবিন্দ কেজরিওয়ালও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তাঁরা ক্ষমতায় এলে নিখরচায় ৩০০ ইউনিট বিদ্যুৎ পাবে হিমাচলবাসী। এ ছাড়া, হিমাচলে ভোটে জিতলে ১০ দিনের মধ্যে ছত্তীসগঢ় ও রাজস্থানের ধাঁচে বিশেষ পেনশন প্রকল্প কার্যকরের কথাও জানান ভূপেশ।

আরও পড়তে পারেন

বিধায়কদের বৈঠক ডাকলেন নীতীশ, আজই কি বিজপির সঙ্গত্যাগ করার সরকারি ঘোষণা?

গভীর নিম্নচাপ বঙ্গোপসাগরে, আশায় বুক বাঁধছে দক্ষিণবঙ্গের কৃষককুল

মাত্র ১৭ বছর বয়সে ব্রিটিশের গুলিতে প্রাণ দিয়ে শহিদ হন কনকলতা বরুয়া

প্রবল সাহস ও বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে রানি রাসমণি বার বার লড়েছেন ইংরেজদের বিরুদ্ধে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন