সবরীমালা মন্দির।

কোচি: সবরীমালা ইস্যুকে কেন্দ্র করে ক্রমে জটিল হয়ে উঠেছে কেরলের পরিস্থিতি। শনিবার ভোররাতে এক হিন্দুত্ববাদী নেত্রীকে পুলিশ আটক করায় শনিবার কেরল বন্‌ধের ডাক দিয়েছে সংগঠনটি। অন্য দিকে সবরীমালায় ঢুকতে ব্যর্থ হয়ে ফিরে গিয়েছেন তৃপ্তি দেশাই।

১০ থেকে ৫০ বছর বয়সি মহিলাদের মন্দিরে প্রবেশাধিকারের বিরোধিতা করছে হিন্দু ঐক্য বেদী সংগঠন। সেই সংগঠনের সভানেত্রী কেপি শশিকলাকে শনিবার ভোর তিনটে নাগাদ সবরীমালা মন্দির প্রাঙ্গণ থেকে আটক করে কেরল পুলিশ।

পুলিশি নিষেধাজ্ঞা অবজ্ঞা করে মন্দিরে ঢুকতে গিয়েছিলেন শশিকলা। সেই কারণেই তাঁকে আটক করা হয়। এর প্রতিবাদে শনিবার বারো ঘণ্টার বন্‌ধের ডাক দিয়েছে এই সংগঠনটি। তবে সবরীমালার দর্শনার্থীদের এই বন্‌ধের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন উত্তাপহীন মিজোরামে ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া কংগ্রেস, প্রভাব ফেলতে চাইছে বিজেপিও

উল্লেখ্য, শনিবার ভোর পাঁচটা নাগাদ ৪১ দিনের জন্য খুলে গিয়েছে মন্দিরের দরজা। তবে দর্শনার্থীদের অভিযোগ, পুলিশি টহল বেশি থাকায় মন্দির দর্শনে অনেক সমস্যার মুখে পড়ছেন তাঁরা।

এ দিকে তৃপ্তি মুম্বই ফিরে গেলেও, শুক্রবার কোচি বিমানবন্দরে তাঁকে বাধা দেওয়ার অভিযোগে ৫০০ জনকে চিহ্নিত করেছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here