repoll nota

ওয়েবডেস্ক: নির্বাচন কমিশনের সৌজন্যে ইভিএমে ‘নোটা’ অপশন সংযোজিত হলেও এখনও পর্যন্ত তার কার্যকারিতা বিশেষ নেই। কোনো প্রার্থীকেই পছন্দ না হলে ‘নোটা’ বা ‘নান অফ দ্য অ্যাবভ’-এর বোতামটি টিপতে পারেন ভোটাররা। কিন্তু দেখা যায় তাতে লাভ বিশেষ হয় না। নোটা যতই ভোট পাক, সব সময়ে যে প্রার্থী বেশি ভোট পেয়েছেন তাকেই জয়ী ঘোষণা করা হয়। কোনো ভাবেই পুনরায় নির্বাচনের ব্যবস্থা এখনও পর্যন্ত করেনি কমিশন।

নোটায় ভোট বেশি পড়লে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানালেন প্রাক্তন নির্বাচন কমিশনার টিএস কৃষ্ণমূর্তি। পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “আমার মতে নোটা অপশনটা খুব ভালো একটা ব্যাপার। আমার মতে, নোটা যদি একটা বিশেষ সংখ্যা পেরিয়ে যায়, যদি জয়ের ব্যবধানের থেকে নোটায় পড়া ভোটের সংখ্যা অনেক বেশি হয় তা হলে আবার নির্বাচন করা যেতে পারে।” এর জন্য একটি আইন প্রণয়নের কথাও জানান তিনি।

সাম্প্রতিক গুজরাত নির্বাচনে সাড়ে পাঁচ লক্ষ ভোটার নোটার বোতাম টিপেছিলেন। অনেক আসনেই নোটায় প্রাপ্ত ভোটের থেকে কম ছিল প্রার্থীর জয়ের ব্যবধান। শতাংশের বিচারে বিজেপি এবং কংগ্রেসের পরেই ছিল নোটা। অন্য আরেকটা উপায়ও বলেছেন কৃষ্ণমূর্তি। তাঁর কথায়, বিজয়ী প্রার্থী যদি প্রাপ্ত ভোটের এক-তৃতীয়াংশ ভোট না পান তা হলেও পুনরায় নির্বাচন আয়োজন করা যেতে পারে।

কৃষ্ণমূর্তি মনে করেন এই পদক্ষেপ করলেই স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, দুর্নীতিমুক্ত এবং জনপ্রিয় মানুষকেই প্রার্থী করবে রাজনৈতিক দলগুলি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here