নির্ভয়া কাণ্ডে এ বার সব নজর রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের দিকে

0
Ramnath Kovind
ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: ফাঁসি থেকে বাঁচার শেষ রাস্তাটি খোলা রয়েছে নির্ভয়া কাণ্ডে সাজাপ্রাপ্তদের- রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে এই আর্জি পাঠিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

তবে চার সাজাপ্রাপ্তের মধ্যে একজন, মুকেশ কুমার এই প্রাণভিক্ষার আর্জি জানিয়েছে। সে আর অন্যতম সাজাপ্রাপ্ত বিনয় কুমার সুপ্রিম কোর্টের কিউরেটিভ আবেদন দাখিল করেছিল। সেই আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পর রাষ্ট্রপতির কাছে যাওয়ার রাস্তাটাই একমাত্র খোলা ছিল সাজাপ্রাপ্তদের কাছে।

উল্লেখ্য, সব কিছু ঠিকঠাক চললে ২২ জানুয়ারি সকাল সাতটায় চার সাজাপ্রাপ্তের ফাঁসি কার্যকর হওয়ার কথা। গত ৭ জানুয়ারি দিল্লির দায়রা আদালত চার দোষীর মৃত্যু পরোয়ানা জারি করে। ২২ জানুয়ারি সকাল সাতটার সময় তিহাড় জেলে চার দোষীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের নির্দেশ দেন বিচারক। 

কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে ওই দিনই আদৌ ফাঁসি হবে কি না, সেই নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে যথেষ্ট। কারণ বৃহস্পতিবার জেল কর্তৃপক্ষই দিল্লি সরকারকে ফাঁসি পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে। নতুন দিন-তারিখ ঘোষণা করার জন্যও আবেদন করেছে জেল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন প্যারলে থাকাকালীন নিখোঁজ হয়ে গেল ভারতের ইতিহাসে অন্যতম ভয়ংকর জঙ্গি হামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী

জেল কর্তৃপক্ষের বক্তব্য, দোষীরা যে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানিয়েছে, তার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসি কার্যকর করা সম্ভব নয়। 

বুধবার দিল্লি সরকার আদালতে জানিয়েছিল আইনি জটিলতাতেই ২২ জানুয়ারি ফাঁসি কার্যকর করা সম্ভব নয়। কারণ আইনি পথে মৃত্যুদণ্ড রদের সব বিকল্প শেষ হওয়ার পরেও ১৪ দিন সময় দিতে হয়। ফলে রাষ্ট্রপতি যদি এখনই প্রাণভিক্ষার আর্জি খারিজ করে দেন, তা হলেও তা ২২ জানুয়ারি কার্যকর করা যাবে না বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.