Talaq

ওয়েবডেস্ক: গত শনিবার ঘরোয়া বিবাদের নিষ্পত্তিতে থানায় যান স্বামী-স্ত্রী-সহ উভয় তরফের লোকজন। উত্তরপ্রদেশের মেরঠের এসপি (শহর) রণবিজয় সিং জানান, দু’তরফেই অভিযোগ করা হয় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরেই বনিবনা হচ্ছে না। সব সময়ই তাঁদের মধ্যে বিবাদ লেগে রয়েছে। ফলে তাঁরা পৃথক ভাবে থাকতে চান।

দু’তরফের কথা শোনার পর তাঁদের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ চায় পুলিশ। এক পরই সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ্যে আসে একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যাচ্ছে থানার মধ্যে দাঁড়িয়েই স্বামী তাঁর স্ত্রীকে তিন তালাক দিচ্ছেন। পুলিশ অবশ্য তালাকের প্রসঙ্গটিকে এড়িয়ে যেতে চাইছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, স্বামী-স্ত্রীর বিবাদের মূল কারণ বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক। অভিযোগ, স্বামী নিজের স্ত্রীর গোপন প্রেমের ব্যাপারে জেনে যাওয়ার পর থেকেই দু’জনের মধ্যে বিবাদ তুঙ্গে ওঠে। এমনকী প্রেমিকের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় স্ত্রীকে দেখে ফেলার দাবিও করেছেন স্বামী। যে কারণে পুরো বিষয়টির নিষ্পত্তিতে স্ত্রী ও উভয় পরিবারের লোকজনকে নিয়ে তিনি থানায় যান। সেখানে গিয়েই তিনি স্ত্রীকে তালাক দেন। ভিডিওটিতেও যা স্পষ্ট ভাবে ধরা পড়েছে।

তবে অভিযোগ আরও গুরুতর। স্বামী অভিযোগ করেছেন, প্রায় বছরখানেক ধরে রাতে তাঁর দুধের মধ্যে নেশার দ্রব্য মিশিয়ে দিয়ে স্ত্রী চলে যেতেন প্রেমিকের কাছে। এই ঘটনা দীর্ঘদিন ঘটার পর সম্প্রতি তা হাতেনাতে ধরা পড়ে। যদিও এ ব্যাপারে তাঁর স্ত্রীর কোনো মন্তব্য জানা যায়নি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন