Tejashwi Yadav
তেজস্বী যাদব। ফাইল ছবি

কলকাতা: বুধবার বিহারের উপমুখ্য়মন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন তেজস্বী যাদব। পর দিনই কেন্দ্রীয় এজেন্সি নিয়ে সুর চড়ালেন আরজেডি নেতা। বললেন, “আমি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটকে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানাই।”

নীতীশ কুমারের নতুন সরকারের দু’নম্বর এখন তেজস্বী। বিজেপি-র এনডিএ থেকে নীতীশের প্রস্থান এবং মহাজোট তৈরির অন্যতম কারিগর তিনি। সমসাময়িক পরিস্থিতির আবহে কেন্দ্রীয় এজেন্সি নিয়ে প্রশ্ন করায় এমনই জবাব দিয়েছেন লালুপুত্র।

বৃহস্পতিবার এনডিটিভি-তে একটি সাক্ষাৎকারে তেজস্বী বলেন, “তারা (তদন্তকারী সংস্থা) আমার বাড়িতে একটি অফিস খুলতেই পারে। আমি আপনার চ্যানেলের মাধ্যমে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। ইডি, সিবিআই, আয়কর— প্রয়োজন মনে করলেই আসুক এবং থাকুক। এখন দূরে থেকে কেন দু’মাস পরে এসে অভিযান চালাবে? এখন থেকেই এসে থাকুক, কাজ সহজ হবে”।

এখানেই না থেমে তেজস্বী বলেন, “বিজেপি-র পার্টি সেলের মতো কাজ করছে” কেন্দ্রীয় এজেন্সি। আরজেডি প্রধান লালুপ্রসাদ যাদব, তাঁর স্ত্রী রাবড়িদেবী, তেজস্বী এবং অন্যদের বিরুদ্ধে এর আগেই মামলা দায়ের করেছে সিবিআই। নিজের বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে তেজস্বী বলেন, “যে সময়ে আমার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছিল, আমি ছোট ছিলাম, ক্রিকেট খেলা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। যদি আমি সত্যিই কোনো অন্যায় করে থাকি, তা হলে আমার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হল না কেন”?

প্রসঙ্গত, অর্থের বিনিময়ে দু’টি বেসরকারি সংস্থাকে পাইয়ে রেলের হোটেল তৈরির বরাত পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছিল লালুর পরিবারের বিরুদ্ধে। অন্য দিকে, বুধবার মুখ্যমন্ত্রীপদে শপথ নেওয়ার পর নীতীশও জোর দিয়ে বলেন, তিনি ইডি বা সিবিআই-এর মতো কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাগুলিকে ভয় পান না।

আরও পড়তে পারেন: 

‘ভয়ংকর খেলা’র পর সিবিআই-এর জালে অনুব্রত, এ বার কি পার্থর মতোই হারাতে হবে পদ?

২০ আগস্ট পর্যন্ত সিবিআই হেফাজত, অনুব্রতকে রাতেই আনা হচ্ছে কলকাতায়

অনুব্রত মণ্ডলের পাশে নেই দল? অবস্থান জানিয়ে দিল তৃণমূল

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন