সেরো সার্ভের রিপোর্ট তুলে ধরে কোভিড নিয়ে সতর্ক করলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

0

নয়াদিল্লি: এক বার কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পর ফের সংক্রামিতের সংখ্যা নগণ্য হলেও বিষয়টিকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে রবিবার জানালেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন। পাশাপাশি তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, “সেরো সার্ভের রিপোর্ট যেন মানুষের মধ্যে আত্মতুষ্টির ধারণা তৈরি না করে”।

এ দিন নিজের সাপ্তাহিক অনুষ্ঠান ‘সানডে সংবাদ’-এ অংশ নিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী। বলেন, “শুধু ভারতে নয়, সারা বিশ্বেই একাধিক বার করোনা আক্রান্ত হওয়ার বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। তবে এ মুহূর্তে বিষয়টা ততটা গুরুতর বিষয় নয়। অন্য দিকে দ্বিতীয় বার আক্রান্তের সংখ্যা নগণ্য হলেও বিষয়টির উপর নজর রাখা হচ্ছে। ঠিক যে ভাবে কোভিড-১৯-এর প্রতিটি দিক নিয়ে গবেষণা চলছে, এ বিষয়টিও তার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে”।

মন্ত্রী বলেন, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর মেডিক্যাল রিসার্চ (ICMR) বিষয়টির উপর নজর রাখছে।

সেরো সার্ভে এবং সচেতনতা

ভাইরাসের বিরুদ্ধে শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে কি না, তা নির্ণয়ে এই নিয়ে দু’টি সেরো সার্ভে রিপোর্ট পেশ করেছে আইসিএমআর। তবে দ্বিতীয় বারেও সার্বিক আশাব্যঞ্জক ফল পাওয়া যায়নি বলে ইঙ্গিত দেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, “ভারতের বৃহত্তর জনসংখ্যার শরীরে ভাইরাসের বিরুদ্ধে অনাক্রম্যতা অর্জন এখনও অনেকটাই দূরে। আইসিএমআরের দ্বিতীয় সেরো সার্ভে রিপোর্টে সেই তথ্যই উঠে এসেছে”।

সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেন, “ফলে সংক্রমণ ঠেকাতে আমাদের এখনও যথাযথ কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। যে কোনো রকমের অবেহলা সংক্রমণ বিস্তারের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। এমনকী উপাসনার স্থানেও মাস্ক পরে যাওয়া উচিত”।

প্রথম সেরো সার্ভে করা হয় মে মাসে। যে সময় দেশব্যাপী করোনা সংক্রমণ ছিল মাত্র .৭৩ শতাংশ। বিবৃতিতে তিনি বলেন, “মহামারির বিরুদ্ধে তখনই লড়াই করা যেতে পারে, যখন সরকার এবং সমাজ একযোগে কাজ করবে”।

তাঁর কথায়, “প্রত্যেকটি মানুষেরই উচিত কোভিডের বিরুদ্ধে সচেতনতা গড়ে তোলা। নিজে সচেতন হওয়া এবং অন্যকে সচেতন করা। আমি নিজেও গাড়ি থামিয়ে মাস্ক-বিহীন মানুষকে মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা কথা বোঝাচ্ছি”।

আরও পড়তে পারেন: আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ লক্ষ ছুঁইছুঁই, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সুস্থতার হার

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন