গত দীর্ঘ পঁচিশ বছর ধরে বর্ষার পূর্বাভাস দিয়ে আসছে দিল্লির মৌসম ভবন, কিন্তু শীতকালীন কোনও পূর্বাভাস দিত না তারা। এই মরসুম থেকে সেই শীতেরও পূর্বাভাসও দেবে আবহাওয়া দফতর।

প্রায় নির্ভুল বর্ষার পূর্বাভাসে দেওয়ায় খ্যাত হয়েছে আবহাওয়া দফতর। জুন থেকে সেপ্টেম্বর, এই চার মাস বৃষ্টি কেমন হবে এই ব্যাপারে এপ্রিল আর মে মাসে দু’টি আগাম পূর্বাভাস দেয় তারা। এর ফলে লাভবান হয় মানুষ। কম বৃষ্টির পূর্বাভাস বা অতিরিক্ত বৃষ্টির আগাম পূর্বাভাসে চাষের ক্ষেত্রে ক্ষতি এড়ানো গেছে। প্রস্তাবমতো শীতের আগাম পূর্বাভাসে প্রাণহানি এড়ানো যাবে বলে বিশেষজ্ঞ মহলের ধারণা।

ডিসেম্বর, জানুয়ারি আর ফেব্রুয়ারি কেমন ঠান্ডা পড়তে চলেছে সে ব্যাপারে নভেম্বরের শেষেই পূর্বাভাস দেওয়া হবে বলে জানান আবহাওয়া দফতরের ডিরেক্টর জেনারেল কে ভি রমেশ। তাঁর কথায়, “গরমের সময় কোথায় তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকবে, কোথায় বেশি থাকবে, সেটা জানা যেমন জরুরি, ঠিক ততটাই জরুরি শীতে কোথায় স্বাভাবিক তাপমাত্রা থাকবে, কোথায়ই বা স্বাভাবিকের কম থাকবে। এর সাথে দেশের কোন অংশে কেমন তাপমাত্রা থাকবে, শৈত্যপ্রবাহ বইবে কি না সে ব্যাপারেও আমরা আগাম জানিয়ে দেব”। শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস নিয়মিতভাবে জানানো হবে বলে রমেশ জানান।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here