agriculture west bengal

কলকাতা: ধান ও ডালের চাষ বাড়লেও গত বছরের তুলনায় এ বছর শীতকালীন বা রবি ফসলের চাষের পরিমাণ হ্রাস পেয়েছে সারা দেশে। সম্প্রতি কৃষি মন্ত্রকের একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, গত বারের থেকে এ বার মোট চাষ হওয়া জমির পরিমাণ কমেছে .৫২শতাংশ। এবং এই কমে যাওয়া জমির পরিমাণের সঙ্গে হ্রাস পেয়েছে গম, জোয়ার, বাজরা, রাগি এবং তৈল শস্যের চাষ। যদিও গত বারের তুলনায় ধান ও ডাল জাতীয় ফসলের চাষ সামান্য পরিমাণ বেড়েছে বলে জানানো হয়েছে ওই রিপোর্টে।

ওই রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, গতবার এ দেশে ঠিক এই সময় পর্যন্ত বিভিন্ন ফসল চাষের জন্য ব্যবহৃত হয়েছিল মোট ৬২০.৯৯ লক্ষ হেক্টর জমি। কিন্তু এ বার তা কমে দাঁড়িয়েছে ৬১৭ লক্ষ হেক্টর জমি। অস্বাভাবিক ভাবে দেখা গিয়েছে, কেন্দ্র এ বারের রবি ফসলের জন্য চাষের জমির লক্ষ্য মাত্রা নির্দিষ্ট করেছিল ৬২৩.৫৩ লক্ষ হেক্টর। কিন্তু সেই লক্ষ্য মাত্রা থেকে অনেকটাই দূরে থাকতে হল এ বার।

লক্ষ্যণীয় ভাবে গমের চাষ কমেছে ৪.০২ শতাংশ। বিশেষত মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গ এবং মধ্যপ্রদেশ-এই তিন রাজ্যে গমের চাষ অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে। আবার গুজরাতস হিমাচলপ্রদেশ এবং কর্নাটকে গমের চাষ গত বারের থেকে বেড়েছে। আবার সরষের চাষও তুলনা মূলক ভাবে কমে গিয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এই মরশুমে সরষে চাষের জমির পরিমাণ গত বারের থেকে প্রায় ৫.০১ শতাংশ কমে গিয়েছে।

তবে ডাল জাতীয় শস্যের চাষ এ বার অনেকটাই বাড়িয়েছেন কৃষকরা। ৪.৭২ শতাংশ জমির পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে এই ফসলের ক্ষেত্রে। মধ্যপ্রদেশ, কর্নাটক এবং অন্ধ্রপ্রদেশে এই রবি ফসলের চাষ বেড়েছে সব থেকে বেশি।

তবে পশ্চিমবঙ্গে গমের ফলন কেন কমল, এমন প্রশ্নের উত্তরে রাজ্যের কৃষি দফতরের এক আধিকারিক বলেন, তাঁদের কাছে এ ধরনের কোনো তথ্য নেই। তাছাড়া নানান কারণে এ রাজ্যে গমের চাষ নিয়ে ততটা আগ্রহ নেই কৃষকদের মধ্যে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন