kumarswamy srown

ওয়েবডেস্ক: কর্নাটকের কংগ্রেস-জেডি(এস) জোটের মুখ্যমন্ত্রীপদে কুমারস্বামীর শপথ নেওয়ার সপ্তাহ ঘোরেনি। এরই মাঝে রাজ্যে বন্‌ধ ডেকে দিল বিরোধী দল বিজেপি।

রাজ্যের জোট সরকারকে থিতু হওয়ার ন্যূনতম সময় না দিয়েই আক্রমণের পথে এগোতে চাই বিজেপি। দলের এক নেতা বলেছেন, এর আগেও রাজ্যে কংগ্রেস সরকার ছিল। কিন্তু কৃষকের ঋণ মুকুবের জন্য সেই সরকার দীর্ঘ দিন সময় হাতে পাওয়ার পরেও পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়নি। তখনও বিজেপি একই দাবিতে সরব হয়েছে। ফলে নতুন সরকারের শুরুতেই এ ধরনের কর্মসূচি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হওয়ার কারণ নেই। আগামী সোমবার সারা রাজ্যেই বিভিন্ন সরকারি ভবনের সামনে বিক্ষোভ চলবে। রাজ্যে সবর্ত্র বন্‌ধ পালিত হলেও বাদ দেওয়া হবে রাজধানী বেঙ্গালুরুকে।

জেডি (এস)-এর তরফে অবশ্য দাবি করা হচ্ছে, তারা কংগ্রেস সরকারের কাছে এই দাবিতে বরাবর সরব। ক্ষমতা দখল করতে না পেরে কৃষক-দরদি সাজার চেষ্টা করছে বিজেপি।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির প্রবীণ নেতা জগদীশ শেট্টর বলেন, গত শুক্রবার কুমারস্বামী মু্খ্যমন্ত্রীপদে শপথ নিয়েছেন। তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, ক্ষমতায় এলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কৃষকের ঋণ মুকুব করে দেবেন। ফলে সোমবার ২৪ ঘণ্টা পার হয়ে যাচ্ছে। ওই সময়ের মধ্যে সরকার কার্যকরী সিদ্ধান্ত ঘোষণা না করলে বিজেপি বন্‌ধের পথেই যাবে।

কর্নাটকের রাজনৈতিক মহলের মতে, এ ব্যাপারে শাসক এবং বিরোধী দলগুলির মধ্যে খুব একটা ফারাক নেই। প্রতিশ্রুতি রক্ষায় ব্যর্থতার থেকে বিজেপির কাছে সরকার বিরোধিতার বড়ো অস্ত্র হয়ে উঠেছে কৃষক ঋণ। কেন্দ্রে বিজেপির সরকার থাকলেও রাজ্যগত ভাবে বিরোধিতার জন্যই তারা বন্‌ধের রাস্তায় যাচ্ছে। আদতে কংগ্রেস-জেডি (এস) জোটে শুরুতেই আঘাত হানতে পারলে সুদূরপ্রসারী ফল পাওয়া যাবে, এমন চিন্তা নিয়েই এগোচ্ছে বিজেপি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here