committed suicide

ওয়েবডেস্ক: রবিবার সকালে উত্তর দিল্লির বুরারি এলাকায় একটি বাড়ি থেকে উদ্ধার হল ১১ জনের মৃতদেহ। এর মধ্যে ১০ জনকে পাওয়া গিয়েছে ঝুলন্ত অবস্থায়। বাকি এক ৭৫ বছরের বৃদ্ধার মৃতদেহ মিলেছে মেঝেতে। মৃতের তালিকায় সাত জন মহিলা এবং চার জন পুরুষ। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে আত্মহত্যা বল অনুমান করছে।

জানা গিয়েছে, বুরারি সন্ত এলাকার ওই দোতলা বাড়িটিতে থাকতেন ভূপিন্দর এবং ললিত সিং নামে দুই ভাইয়ের পরিবার। দু’জনে ব্যবসায়ী। তাঁদের একটি মুদিখানা ও একটি প্লাইউডের দোকান রয়েছে। নিয়মিত সকাল ছ’টার সময় ওই দোকান তাঁরা খুলতেন। এ দিন সাড়ে সাতটা বেজে যাওয়ার পরেও দোকাল না খোলায় এক প্রতিবেশী খোঁজ নিতে গিয়ে দেখেন বাড়ির দরজা খোলা। ভিতরে গিয়ে তিনি দেখেন ঘরের ছাদে একটি লোহার রড থেকে ঝুলছে ১০টি মৃতদেহ, অন্য দিকে মেঝেতে আরও একটি। ওই প্রতিবেশীরাই পুলিশে খবর দেন।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, দুই ভাইয়ের মধ্যে খুবই মিল ছিল। ফলে এই ঘটনা কেন ঘটল, তা তাঁরাও ঠাহর করে উঠতে পারছেন না। আগের দিন রাতেও এক প্রতিবেশীর সঙ্গে ভূপিন্দরের কথা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর কথায় কোনো অবসাদের চিহ্ন ধরা পড়েনি।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেরজিওয়াল ঘটনাস্থলে গেলে প্রতিবেশীরা তাঁকে জানিয়েছেন, ওই পরিবার বিয়ের আয়োজনে ব্যস্ত ছিল। এরই মধ্যে কী এমন ঘটতে পারে যে প্রত্যেকে আত্মহত্যার পথ বেছে নেবে। মৃতের তালিকায় রয়েছে দুই নাবালকও।

ঘটনার তদন্তে পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখছে। এখনও পর্যন্ত মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে কোনো নির্দিষ্ট মন্তব্য করা হয়নি পুলিশের তরফে। যদিও পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদের চোখ-মুখ কাপড়ে বাঁধা অবস্থায় ছিল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here