বৃষ্টিতে নাজেহাল অবস্থা বেঙ্গালুরু, গুড়গাঁওয়ের

0

জলমগ্ন বেঙ্গালুরুর রাস্তা

প্রবল বৃষ্টিতে জেরবার দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ। বেঙ্গালুরু থেকে মুম্বই, গুড়গাঁও থেকে হায়দরাবাদ, সর্বত্র জনজীবন বিপর্যস্ত। দেশের প্রধান প্রধান শহরগুলিতে ব্যাহত পরিবহণ ব্যবস্থা। দীর্ঘ সময় ধরে ট্র্যাফিক জ্যাম। অফিসযাত্রীদের নাকানিচোবানি অবস্থা।

গত রাত থেকে ব্যাপক বৃষ্টিতে জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত বেঙ্গালুরুতে। রাস্তায় কোথাও হাঁটু, কোথাও কোমর-সমান জল। ড্রেন উপচে, গাছ পড়ে, দেওয়াল ভেঙে দুঃসহ অবস্থা শহরের। সব চেয়ে খারাপ অবস্থা বোম্মান্নাহাল্লি অঞ্চল। কোদিচিকাক্কানাহাল্লি লেকের পাড় ভেঙে জল ঢুকেছে বিলেকাহাল্লি ও সন্নিহিত এলাকায়। এই সব এলাকায় বাড়ির এক তলা জলে ডুবে গিয়েছে। শহরের যে অঞ্চলে ইলেকট্রনিক্স সিটি, তার কাছাকাছি রাস্তাগুলি বেশির ভাগই জলমগ্ন। যার ফলে দুর্বিষহ ট্র্যাফিক জ্যাম। বিভিন্ন জলমগ্ন এলাকা থেকে দুর্গতদের উদ্ধার করতে দমকল নৌকা ব্যবহার করছে। ইলেকট্রনিক্স সিটি থেকে ৩০ মিনিটের দূরত্বে রিং রোডে সাধারণ মানুষকে মাছ ধরতে দেখা যায়।

গত কয়েক দিন ধরেই গুড়গাঁওয়ে বৃষ্টি চলছে। গতকাল তা বেশ বেড়ে যায়। হিরো হোন্ডা চকের কাছে ৮ নম্বর জাতীয় সড়ক জলমগ্ন হয়ে যায়। ফলে ওই সড়ক দিয়ে যান চলাচল কার্যত বন্ধ হয়ে যায়। যার জেরে শহরের অন্যান্য রাস্তায় ব্যাপক ট্র্যাফিক জ্যাম হয়। পরিস্থিতি এমন জায়গায় দাঁড়ায় যে শুক্রবার শহরের স্কুলগুলো বন্ধ রাখতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। বেশ কিছু অফিসও বন্ধ থাকে।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে প্রবল বৃষ্টির ফলে মুম্বই শহরের বিভিন্ন অঞ্চল জলমগ্ন। তার জেরে প্রবল ট্র্যাফিক জ্যাম। ওয়েস্টার্ন এক্সপ্রেস হাইওয়েতে যান চলাচল প্রায় স্তব্ধ। তবে শহরতলির ট্রেন চলাচলে কোনও ব্যাঘাত এখনও ঘটেনি।

গত কয়েক দিন ধরে অবিরাম বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত থাকার পর হায়দরাবাদের অবস্থা শুক্রবার কিঞ্চিৎ ভালো হয়েছে। তবে টোলি চৌকি, মেহদিপতনম, মাধাপুর, বেগমপেট ও সেকেন্দরাবাদ এলাকায় ট্র্যাফিক জ্যাম অব্যাহত।             

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন