খবরঅনলাইন ডেস্ক: সোমবার দিল্লিতে ‘টু প্লাস টু’ (Two Plus Two Meet) বৈঠকে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত (India) আর আমেরিকা (USA)। কয়েক দিনের মধ্যেই আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগে এ দিনের এই বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যের বলে মনে করা হচ্ছে।

সোমবারের এই বৈঠকে আমেরিকার তরফে থাকবেন বিদেশসচিব মাইক পম্পেয়ো (Mike Pompeo) ও প্রতিরক্ষা সচিব মার্ক টি এসপার (Mark T Espar)। অন্য দিকে ভারতের পক্ষে আলোচনায় অংশ নেবেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। দু’ দিনের এই বৈঠকে সামরিক ও কূটনৈতিক ক্ষেত্রে একাধিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার সম্ভাবনা।

উল্লেখ্য, ডোনাল্ড ট্রাম্পের (Donald Trump) ভারত সফরের আট মাসের মধ্যেই দুই দেশের মধ্যে এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকটি হতে চলেছে। আমেরিকার বিদেশ দফতর বিবৃতি দিয়ে বলেছে, “রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের আগামী বৈঠকে ভারতের সঙ্গে আমেরিকা পারস্পরিক বোঝাপড়া আরও বাড়াবে।’’

বিদেশ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেও বৈঠক রয়েছে দুই আমেরিকান কূটনীতিকের। নয়াদিল্লি-ওয়াশিংটন কৌশলগত বোঝাপড়া নিয়ে আলোচনা হবে ওই বৈঠকে। ভারতের পর শ্রীলঙ্কা, মলদ্বীপ, ইন্দোনেশিয়া সফরের কর্মসূচিও রয়েছে পম্পেয়োর।

ভারত আর চিনের মধ্যে বর্তমানে চলতে থাকা অচলাবস্থার দিকেও নজর রয়েছে আমেরিকার। গত সপ্তাহেই ওয়াশিংটন জানিয়েছিল, এলএসি-তে ভারত-চিন উত্তেজনার উপর নজর রেখেছে আমেরিকা। নয়াদিল্লির সঙ্গে তথ্য আদানপ্রদান চলছে। পরিস্থিতি আরও খারাপ না হোক, সেটাই চায় আমেরিকা। ফলে এই বৈঠকে চিন ইস্যুও উঠতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

‘নীতীশ কুমারের সঠিক জায়গা জেল’, চূড়ান্ত আক্রমণে চিরাগ পাসোয়ান

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন