৩ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত উড়ান চলাচল

0

ঋদি হক: ঢাকা

এয়ার বাবলের আওতায় ভারত-বাংলাদেশ আকাশপথ উন্মুক্ত হচ্ছে ৩ সেপ্টেম্বর থেকে। ভারতের অসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রক দু’ দেশের মধ্যে উড়ান চালু করার প্রস্তাব দিয়েছে। শনিবার ভারতের ওই মন্ত্রকের খবর নিশ্চিত করেছে ঢাকায় ভারতীয় হাই কমিশন।

ভারতের অসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, পর্যটন ভিসায় ভারতে প্রবেশ করা যাবে না। বাংলাদেশ থেকে যাঁরা ভারত যাবেন তাঁদের নিজ খরচে ভারতের বিমানবন্দরে করোনা টেস্ট করাতে হবে।

সপ্তাহে ৭টি ফ্লাইট

দেশটি তাদের তিনটি এয়ারলাইন্সকে সপ্তাহে ৭টি ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি দিয়েছে। ভারতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এয়ার বাবলের আওতায় রেখে সব ধরনের ফ্লাইটের স্থগিতাদেশ তুলে নিতে অনুরোধ জানায়।

সপ্তাহে যে ৭টি উড়ান চালুর প্রস্তাব দিয়েছে ভারত তার মধ্যে স্পাইস জেট ৩টি, এয়ার ইন্ডিয়া ২টি ও ইন্ডিগোর ২টি উড়ান চালুর প্রস্তাব রয়েছে। ১৭  আগস্ট রাষ্ট্রীয় অতিথিভবন ‘পদ্মা’য় ভারতের উপহারের অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের  বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ২০ আগস্ট থেকে এয়ার বাবলের আওতায় ভারতের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ চালুর কথা জানিয়েছিলেন। এ নিয়ে বাংলাদেশের তরফে আবেদনের প্রেক্ষিতে ৩ সেপ্টেম্বর দু’দেশের মধ্যে আকাশ পথ উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে।

ভারতের সঙ্গে সরাসরি বিমান চলাচল বন্ধ থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য-সহ ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের যোগাযোগ চালু রয়েছে। করোনাভাইরাসের দুই ডোজ টিকা নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওই দেশগুলোর উড়ানে ভ্রমণ করা যায়।

আরও পড়তে পারেন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার লইসকা বিল এলাকায় ট্রলারডুবি, ২২ মৃতদেহ উদ্ধার, বহু নিখোঁজ

টিকা নিয়ে সুখবরের দু’ দিনের মাথায় জাপান থেকে সাড়ে ৬ লাখ ডোজ এল বাংলাদেশে

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বাংলাদেশ স্মরণ করল জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে

ভারতের উপহারের আরও ৪০টি অ্যাম্বুলেন্স পেল বাংলাদেশ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন