modi asean

নয়াদিল্লি: সাম্প্রতিক ইতিহাসে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুজকাওয়াজে এত সংখ্যক বিদেশি অতিথিকে দেখেনি ভারত। কিন্তু এ বার দেখবে। সৌজন্যে নরেন্দ্র মোদীর আসিয়ান নীতি।

শুক্রবার প্রজাতন্ত্র দিবসে হাজির থাকবে আসিয়ানের দশ দেশ – থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, দ্য ফিলিপিন্স, কাম্বোডিয়া, সিঙ্গাপুর, মায়ানমার, লাওস এবং ব্রুনেইয়ের রাষ্ট্রপ্রধানরা। তার আগের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার আসিয়ানের সঙ্গে ভারতের ২৫ বছরের সম্পর্কের উদযাপন হিসেবে একটি বিশেষ সম্মেলনেরও আয়োজন করা হয়েছে।

আসিয়ান নিয়ে ভারতের আগের নীতি ছিল ‘লুক ইস্ট’। সেটা পরিবর্তন করে এখন মোদী নিয়ে এসেছেন ‘অ্যাক্ট ইস্ট’ নীতি। এই কূটনৈতিক চালেই বাজিমাত করেছেন তিনি। নিয়ে এসেছেন সাম্প্রতিক ইতিহাসের সব থেকে বৃহত্তম বিদেশি অতিথিবর্গ। অনেকটা সাড়ে তিন বছর আগে নিজের শপথের দিন, যে দিন দিল্লিতে সার্ক দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধানদের হাজির করেছিলেন তিনি।

ভারতের প্রতিরক্ষারক্ষামন্ত্রী নির্মলা সিতারমন বলেন, “প্রধানমন্ত্রী যে আসিয়ান নীতিতে পরিবর্তনের কথা বলেছিলেন সেটা ধীরে ধীরে বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন আসিয়ানের দশ রাষ্ট্রপ্রধানের সামনে ভারত তার সেই নীতি পরিবর্তনকে তুলে ধরবে।”

ইতিমধ্যেই দেশে পা রাখতে শুরু করেছেন আসিয়ানের নেতারা। বুধবার বিকেলে এঁদের মধ্যে কয়েক জনের সঙ্গে বৈঠক করার কথা মোদীর। বৈঠক হতে পারে মায়ানমারের নেত্রী আন সান সু কি’র সঙ্গেও। বৈঠকগুলির কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে ব্যবসাবাণিজ্য, যোগাযোগ ব্যবস্থা, পরিকাঠামো উন্নয়ন, আঞ্চলিক উন্নয়ন এবং আঞ্চলিক নিরাপত্তার মতো বিষয়গুলি।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here