Connect with us

দেশ

চরম উত্তেজনার আবহেই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ জানাবে ভারত

imran khan

নয়াদিল্লি: সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও)-এর শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার জন্য পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ জানাবে ভারত। এমনই জানা গিয়েছে ওই সম্মেলনের সঙ্গে যুক্ত এক আধিকারিকের তরফে।

তবে ইমরান এই সম্মেলনে যোগ দিতে ভারতে আসবেন কি না, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত ইসলামাবাদই নেবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এই আধিকারিক একটি সর্বভারতীয় দৈনিককে বলেন, “সম্মেলনের নিয়মাবলি মেনেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হবে। তবে ওই সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী নিজে আসবেন না কি অন্য প্রতিনিধি পাঠাবেন সেই সিদ্ধান্ত পাকিস্তানই নেবে।”

এ বারই প্রথম এই সম্মেলন আয়োজন করছে ভারত। সোমবার এমনই জানিয়েছেন সংগঠনের সচিব ভ্লাদিমির নোরোভ। এ বছরের শেষের দিকে নয়াদিল্লিতে সম্মেলনটি হতে পারে।

আরও পড়ুন কাশ্মীরে নেট-নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সুপ্রিম- পর্যবেক্ষণের পর নমনীয় হল স্থানীয় প্রশাসন

সাধারণ এসসিও-এর সদস্যভুক্ত দেশের প্রধানরাই এই সম্মেলনে যোগ দেন। তবে অতীতে এমন ঘটনাও ঘটেছে, যখন প্রধানরা নিজে না এসে বিদেশমন্ত্রীদের পাঠিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০০১-এ এই এসসিও গঠন করেন রাশিয়া, চিন, কিরজিক প্রজাতন্ত্র, কাজাকস্তান, তাজিকিস্তান এবং উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্টরা। ২০০৫ থেকে এই সংগঠনে পর্যবেক্ষক হিসেবে ডাকা হত ভারতকে। ২০১৭ সালে ভারত আর পাকিস্তান, দুই দেশই এসসিও-এ পূর্ণ সদস্যের মর্যাদা পায়।

দেশ

স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে চিনকে কড়া হুঁশিয়ারি প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের

৭৪তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে শুক্রবার এ কথা বললেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

গলওয়ান উপত্যকায় চিনের সঙ্গে সীমান্ত সংঘর্ষের রেশ ধরেই এমন মন্তব্য করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

নয়াদিল্লি: “শত্রুরা আমাদের আক্রমণ করলে, আমরা উপযুক্ত জবাব দেব”, ৭৪তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে শুক্রবার এ কথা বললেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (Rajnath Singh)।

স্বাধীনতা দিসব উদ্‌যাপনের আগের দিন সশস্ত্র বাহিনীর উদ্দেশে একটি বার্তায় প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, “ভারত হৃদয় জিতে নেওয়ায় বিশ্বাসী, ভূখণ্ড নয়”।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “তার মানে এই নয় যে, আমরা আমাদের আত্মমর্যাদাকে আঘাত করতে দেব। জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ভারত কখনোই প্রথমে কাউকে আঘাত করে না। কিন্তু কেউ আঘাত করলে কী ভাবে আত্মরক্ষা করতে হয়, তা আমরা জানি”।

গত জুন মাসে লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় চিনের সঙ্গে সীমান্ত সংঘর্ষের রেশ ধরেই এমন মন্তব্য করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

তাঁর কথায়, “যদি কোনো শত্রু দেশ আমাদের আক্রমণ করে, তা হলে যে কোনো সময় আমরা সমুচিত জবাব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছি। ইতিহাস বলে, ভারত কখনোই কোনো দেশকে গ্রাস করার জন্য চেষ্টা করেনি”।

একই সঙ্গে তিনি নিশ্চিত করেন, সশস্ত্র বাহিনীর সমস্ত রকমের প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য সরকার সবসময়ই সচেতন।

প্রসঙ্গত, এ দিন জাতির উদ্দেশে ভাষণে গলওয়ান সংঘর্ষ প্রসঙ্গ উঠে আসে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কথায়। বিস্তারিত পড়ুন এখানে: স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের জাতির উদ্দেশে ভাষণ

Continue Reading

দেশ

৩১ হাজারের বেশি টেস্টে নতুন আক্রান্ত তিন হাজারের কিছু বেশি, রাজ্যে আরও কমল দৈনিক সংক্রমণের হার

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এই প্রথম বার, রাজ্যে এক দিনে কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হলেন তিন হাজারের কিছু বেশি মানুষ। এই প্রথম বার রাজ্যে এক দিনে ৩১ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা হল। ফলে আগের দিনের থেকে রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার আরও কিছুটা কমেছে।

রাজ্যের কোভিড-তথ্য

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,০৩৫ জন। এর ফলে রাজ্যে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ১০ হাজার ৩৫৮। ৬০ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২,৩১৯। মৃত্যুহার রয়েছে ২.১০ শতাংশে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ২,৫৭২ জন। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮১,১৮৯ জন। রাজ্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২৬,৮৫০। রাজ্যে সুস্থতার হার বর্তমানে আরও কিছুটা বেড়ে ৭৩.৫৭ শতাংশ হয়েছে।

দৈনিক সংক্রমণের হার আরও কমল

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৩১,৩১৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এই প্রথম রাজ্যে এক দিনে ৩১ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা হল। এর ফলে রাজ্যে মোট ১২ লক্ষ ৪৮ হাজার ২৭২টি নমুনা পরীক্ষা হল। রাজ্যে বর্তমানে প্রতি দশ লক্ষ মানুষে ১৩,৮৭০ জনের করোনা পরীক্ষা হচ্ছে।

প্রতি দিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে, তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, সেটাকেই বলা হচ্ছে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার। এ দিন রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার নেমে এসেছে ৯.৬৯ শতাংশে।

রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার বৃহস্পতিবার ছিল ৯.৯৭ শতাংশ। বুধবার ছিল ১০.৫৯ শতাংশ। মঙ্গলবার এটা ছিল ১০.৮৪ শতাংশ। সোমবার এটা ছিল ১১.০৭ শতাংশ।

কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলার পরিস্থিতি স্থিতিশীল

কলকাতা এবং পার্শ্ববর্তী চার জেলার কোভিড-পরিস্থিতি মোটের ওপরে একই রকম রয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ গত আড়াই সপ্তাহ ধরে নতুন আক্রান্তের সংখ্যার যে প্রবণতা ধরা পড়ছে এই জেলাগুলিতে, তাতে বিশেষ বদল নেই।

গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬১৫ জন। এর ফলে শহরে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩১,০৮৫। এই সময়ে ৬৩৫ জন সুস্থ হয়েছেন। এর ফলে শহরে এখন মোট সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা ২৩,৪৯২। মৃত্যু হয়েছে ১০৩৬ জনের। শহরে বর্তমানে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৬,৫৫৭ জন।

উত্তর ২৪ পরগণায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৬০৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন, সুস্থ হয়েছেন ৫৪৬ জন। দক্ষিণ ২৪ পরগণায় নতুন করে আক্রান্ত ২৫৪ জন। হাওড়া এবং হুগলিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২১৮ আর ১৫১ জন।

পূর্ব মেদিনীপুরে এক দিনেই দুশো

টেস্ট বাড়তেই আক্রান্তের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য ভাবে বাড়ছে দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাগুলোতে। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা দু’শো পেরিয়ে গিয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরে (২২৪)। এর পরে রয়েছে পূর্ব বর্ধমান (১০৮)।

নদিয়ায় ৯০ আর মুর্শিদাবাদে ৬৮ জন কোভিড পজিটিভ হয়েছেন। বাকি জেলাগুলিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা পঞ্চাশের কম। তবে নতুন আক্রান্তের থেকে সুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা বেশি হওয়ায় সক্রিয় রোগী কমেছে নদিয়া, বীরভূম আর পশ্চিম বর্ধমানে।

গত ২৪ ঘণ্টায় মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুর আর পশ্চিম বর্ধমানে এক জন করে আর পূর্ব মেদিনীপুরে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।

কোচবিহারে প্রথম কোভিড-মৃত্যু

মৃত্যুহীন থাকার রেকর্ড ধরে রাখতে পারল না কোচবিহার। এই প্রথম এই জেলায় কোভিডে একজনের মৃত্যু হল। একই সঙ্গে এই জেলায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যাও বেশ বেশি (৮৯)।

তবে এই সময়কালে সব থেকে বেশি আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে দার্জিলিং থেকে (১০২)। এ ছাড়া দক্ষিণ দিনাজপুর (৭৮), জলপাইগুড়ি (৭২), মালদা (৫৮) আর উত্তর দিনাজপুর (৫২) থেকেও যথেষ্ট বেশি পরিমাণে কোভিড রোগীর সন্ধান মিলেছে।

উত্তরবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। কোচবিহার ছাড়াও এই মৃত্যুগুলি হয়েছে দার্জিলিং (২), জলপাইগুড়ি (১) আর দক্ষিণ দিনাজপুরে (১)।

Continue Reading

দেশ

স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের জাতির উদ্দেশে ভাষণ

এর পরই একে একে তাঁর ভাষণে উঠে আসে সমসাময়িক ঘটনাবলি এবং সেগুলির বিশ্লেষণ।

৭৪তম স্বাধীনতা দিবসের আগের সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতির ভাষণ।

ওয়েবডেস্ক: ৭৪তম স্বাধীনতা দিবসের (74th Independence day) প্রাক্কালে শুক্রবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের (Ramnath Kovind) ভাষণে উঠে এল করোনা মহামারি থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী গরিবকল্যাণ যোজনা, গালওয়ান সংঘর্ষ, এমনকী রামমন্দির প্রসঙ্গও।

তিনি বলেন, “৭৪তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে দেশে এবং বিদেশে বসবাসরত সকল মানুষকে শুভেচ্ছা জানাতে পেরে আমি আনন্দিত হই। ১৫ আগস্ট আমাদের উদযাপনে অংশ নিয়ে তেরঙা ওড়ানোর উত্তেজনায় মন ভরে যায়”।

এর পরই একে একে তাঁর ভাষণে উঠে আসে সমসাময়িক ঘটনাবলি এবং সেগুলির বিশ্লেষণ।

লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় চিনা সেনা অতর্কিত হামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “গলওয়ানে ভারতীয় সেনা বীরত্বের পরিচয় দিয়েছেন। সারা দেশ তাঁদের স্যালুট জানায়। আমাদের সেনারা নিজেদের জীবন দিয়ে সীমান্ত সুরক্ষা করেছেন। আমরা শান্তি রক্ষায় বিশ্বাসী, তবে আগ্রাসী আচরণের পাল্টা জবাবও আমরা দিতে জানি”।

করোনা মহামারি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে আমাদের চিকিৎসক, নার্স এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে দেশ ঋণী। দুর্ভাগ্যজনক ভাবে তাঁদের কেউ কেউ মহামারিতে প্রাণ পর্যন্ত হারিয়েছেন। তাঁরা দেশের মানুষের কাছে নায়ক”।

অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে রামমন্দির নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন প্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতি বলেন, “দিন দশেক আগে রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপিত হয়েছে। এই অনুভূতি গৌরবের। এর জন্য দেশের মানুষ দীর্ঘদিন ধরে ধৈর্য্যের সঙ্গে অপেক্ষা করেছেন। প্রত্যেকেই দেশের বিচার ব্যবস্থার প্রতি আস্থা রেখেছেন”।

তিনি বলেন, “এ বছরের স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপন অন্যান্য বারের মতো করে হবে না। কারণ একটাই, করোনা মহামারি। সারা বিশ্ব এই মারণ ভাইরাসের শিকার। কেন্দ্রীয় সরকার পরিস্থিতি মোকাবিলায় কার্যকরী পদক্ষেপ নিয়েছে”।

তাঁর কথায়, “প্রধানমন্ত্রী গরিবকল্যাণ যোজনার মাধ্যমে কয়েক কোটি কাজ হারানো অভিবাসী শ্রমিকের পাশে দাঁড়িয়েছে। অন্য দিকে ৮০ কোটি মানুষকে নিশ্চিত খাদ্যশস্য সরবরাহ করছে”।

কেন্দ্রের নতুন শিক্ষানীতির ভূয়সী প্রশংসা করে রাষ্ট্রপতি বলেন, “কেন্দ্রীয় সরকার ন্য়াশনাল এডুকেশন পলিসি ঘোষণা করেছে। আমি নিশ্চিত, নতুন এই নীতি কার্যকর হলে পুরো শিক্ষাব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হবে। নতুন ভারত গঠনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সহায়ক ভূমিকা নেবে এই নীতি। এই নীতির আওতায় প্রত্যেকটি শিশু তার নিজের মাতৃভাষায় শিক্ষাগ্রহণ করতে পারবে, অন্যদিকে শিক্ষার মানেরও উন্নতি হবে”।

পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশায় ঘূর্ণিঝড় উম্পুনে ক্ষতির কথাও উল্লেখ করে তিনি বলেন, “২০২০ সালে যেমন আমরা অসংখ্য বিপর্যয়ের মুখোমুখি হচ্ছি, তেমনই শিক্ষাও নিচ্ছি ভবিষ্যতের জন্যে। আমি আত্মবিশ্বাসী, সংহতি এবং সম্প্রীতির মাধ্যমেই আমরা নিজেদের এগিয়ে নিয়ে যাব”।

Continue Reading
Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন

Advertisement
বিনোদন21 mins ago

এ বার সুশান্ত সিং রাজপুতকে নিয়ে মুখ খুললেন তাঁর দেহরক্ষী

দেশ44 mins ago

স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে চিনকে কড়া হুঁশিয়ারি প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের

দেশ50 mins ago

৩১ হাজারের বেশি টেস্টে নতুন আক্রান্ত তিন হাজারের কিছু বেশি, রাজ্যে আরও কমল দৈনিক সংক্রমণের হার

দেশ1 hour ago

স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের জাতির উদ্দেশে ভাষণ

বিদেশ2 hours ago

৪০ বছর ধরে মিলেছে অক্ষরে অক্ষরে, ২০২০-তে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভবিষ্যৎ বলে দিলেন সেই অধ্যাপক!

RBI
শিল্প-বাণিজ্য3 hours ago

কেন্দ্রকে ৫৭,০০০ কোটি টাকার ‘চেক’ দিচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

শিক্ষা ও কেরিয়ার3 hours ago

ডিপ্লোমা কোর্সে ভরতির অনলাইন আবেদন চালু করল রাজ্যের কারিগরি শিক্ষা বিভাগ

ক্রিকেট3 hours ago

আইপিএলের আগেই জোরদার দ্বৈরথ, সীমিত ওভারের সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া

দেশ12 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৬৪৫৫৫, সুস্থ ৫৫৫৭৩

রাজ্য2 days ago

২৮ আগস্ট রাজ্যে লকডাউন হচ্ছে না

বিনোদন3 days ago

সঞ্জয় দত্তের স্টেজ ৩ ফুসফুসের ক্যান্সার, চিকিৎসার জন্য আমেরিকা যাচ্ছেন

শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

উচ্চ মাধ্যমিকের পরে : গ্রাফিক ডিজাইনের অনলাইন ফ্রি কোর্স, পর্ব ১

অনুষ্ঠান2 days ago

‘এএস ইভেন্ট ‘-এর আয়োজন ট্যালেন্ট হান্ট ‘লকডাউন সুপার কিডস ২০২০’, দেখা যাবে অনলাইনে

রাজ্য2 days ago

করোনা-সংক্রমণে আশার আলো! পশ্চিমবঙ্গে কমেছে ‘আর’ নম্বর

ক্রিকেট2 days ago

আইপিএলের টাইটেল স্পনসরশিপের দৌড়ে জোর লড়াই

বিজ্ঞান7 hours ago

কোভিডের সম্ভাব্য উপসর্গের ক্রমগুলি খুঁজে পাওয়া গিয়েছে, দাবি এক দল বিজ্ঞানীর

কেনাকাটা

care care
কেনাকাটা1 day ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 week ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা1 week ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা1 week ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা4 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা4 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

নজরে

Click To Expand