নয়াদিল্লি: বৈধ টিকিট থাকা সত্ত্বেও ট্রেনের সিট জবরদখল হয়ে যাওয়ার সমস্যা ইদানীং বেশ বেড়েছে। ভুক্তভোগী হচ্ছেন বৈধ টিকিটধারী যাত্রীরা। এমনটা হয়েছিল জনৈক যাত্রী বিজয় কুমারের ক্ষেত্রে। কিন্তু তিনি দমেননি। সোজা অভিযোগ জানান দিল্লি স্টেট কনজিউমার্স ডিসপিউট রিড্রেসাল কমিশনে। সেই কমিশনই বিজয়বাবুকে ৭৫,০০০ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছে রেলকে।

ঘটনাটি চার বছর আগের। বিশাখাপত্তনম থেকে দিল্লিগামী দক্ষিণ এক্সপ্রেসে যাত্রা করছিলেন বিজয়বাবু। হাঁটুর সমস্যার জন্য নীচের বার্থেই সিট নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু মধ্যপ্রদেশের বিনা স্টেশনে ট্রেন পৌঁছোতেই সমস্যায় পড়েন ওই ব্যক্তি। বৈধ টিকিট না থাকা এক ব্যক্তি তাঁর সিট দখল করে নেয়। বিজয়বাবু তাঁকে বারবার বোঝানোর চেষ্টা করলেও, তিনি বুঝতে রাজি হননি। বাকি যাত্রাটা দাঁড়িয়েই করতে হয় বিজয়বাবুকে।

কমিশনে দায়ের করা অভিযোগপত্রে বিজয়বাবু জানিয়েছিলেন যে, সিট সংক্রান্ত এই অভিযোগ তিনি টিটিইকে করতে গিয়েছিলেন, কিন্তু ট্রেনে তখন কোনো টিটিই ছিলই না। সেই সঙ্গে তিনি আরও জানিয়েছিলেন, জোর করে জবরদখল করা ওই ব্যক্তি যথেষ্ট অভব্য আচরণও করেছিলেন।

বিজয়বাবুর এই অভিযোগের ভিত্তিতেই এই ক্ষতিপূরণের এই নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। বিচারপতি বীণা বীরবলের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ তাদের নির্দেশে আরও জানিয়েছে যে ক্ষতিপূরণের টাকার এক-তৃতীয়াংশ ওই টিটিই-এর বেতন থেকে কেটে নেওয়া হোক, যাঁর ওই সময়ে ওই ট্রেনে ডিউটি থাকলেও, ছিলেন না।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here