smart coach
স্মার্ট কোচ। ছবি সৌজন্যে জি নিউজ।

ওয়েবডেস্ক: যাত্রী-স্বাচ্ছন্দ্যের কথা মাথায় রেখে ‘স্মার্ট কোচ’ নিয়ে এল ভারতীয় রেল। ভবিষ্যতে বিভিন্ন ট্রেনে মোট একশোটা এ রকম কোচ তৈরি করার পরিকল্পনা করছে রেল। রায়বরেলির ‘মডার্ন কোচ ফ্যাক্টরি’-তে সম্পূর্ণ ‘মেক-ইন-ইন্ডিয়া’ পদ্ধতিতে এই কোচ তৈরি করা হচ্ছে।

এই স্মার্ট কোচের সমস্ত বাড়তি পরিষেবার জন্য বাৎসরিক ১২ থেকে ১৪ লাখ টাকা খরচ হতে পারে বলে জানিয়েছে রেল মন্ত্রক।

একবার দেখে নিই কী বৈশিষ্ট্য রয়েছে এই কোচগুলির।

১) এই অত্যাধুনিক কোচগুলোতে থাকবে একটি করে ডায়গনস্টিক সিস্টেম সেনসর।  এর ফলে কোচের শারীরিক অবস্থা এবং কর্মক্ষমতাও সময়ে সময়ে পরীক্ষা করার সুবিধা থাকবে। পাশাপাশি রেললাইন ট্রেন চলাচলের জন্য অনুকুল কি না, তা-ও জানিয়ে দেবে ওই সেন্সর।

আরও পড়ুন পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন ঘিরে আমডাঙায় ব্যাপক সংঘর্ষ, হত ৩

২)  ট্রেনের সব স্মার্ট কোচকে নজরে রাখতে বসানো হবে কম্পিউটর সিস্টেম। একে বলা হচ্ছে, প্যাসেঞ্জার ইনফরমেশন অ্যান্ড কোচ কমপিউটিং সিস্টেম। এই ব্যবস্থা জিএসএম প্রযুক্তির সাহায্যে কাজ করবে। ট্রেন কোথায় আছে এবং আগামী স্টেশন আসতে কতক্ষণ সময় লাগবে, এই সব তথ্য রেলযাত্রীকে জানিয়ে দেবে স্মার্ট কোচ।

৩) এই স্মার্ট কোচগুলিতে থাকবে সিসিটিভি। এতে নিরাপত্তা আরও আঁটোসাটো হবে বলেই আশাবাদী রেল কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে থাকবে টকব্যাক প্রযুক্তিও। এর ফলে কোচের যাত্রীরা ট্রেনের গার্ডের সঙ্গে খুব সহজেই যোগাযোগ করতে পারবেন।

৪) ভারতীয় রেলের প্রতিটি স্মার্ট কোচেই থাকছে ওয়াই-ফাই পরিষেবা। পাশাপাশি রেলযাত্রীরা চাইলেই কোচের সমস্ত তথ্য পেতে পারেন এবং ‘রিয়েল টাইমে’ সেই সব তথ্য সরবরাহ করার ক্ষমতাও থাকবে এই স্মার্ট কোচগুলির।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন