ওয়েবডেস্ক: শীত এলেই কুয়াশা, কুয়াশা হলেই ট্রেন-বিলম্ব। এটা কার্যত ফি-বছরের ব্যাপার। শীতে মানুষ উত্তর ভারত ট্রেনে যাওয়ার পরিকল্পনা করবেন কী, সব সময় মাথায় থাকে চিন্তা, যদি ট্রেন বিশাল দেরি করে। ট্রেন বাতিলেরও আশঙ্কা থেকে যায়। এই সমস্যা মোকাবিলার জন্য সরকারের কাছে বারবার দাবি জানানো হলেও, এত দিন পর্যন্ত সে ভাবে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। তবে এ বার কুয়াশা মোকাবিলা করার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

কুয়াশায় যাতে ট্রেন চালাতে সমস্যা না হয়, তার জন্য ট্রেনের ইঞ্জিনে থাকবে বিশেষ কুয়াশা সুরক্ষা যন্ত্র। এটি জিপিএস পদ্ধতিতে কাজ করবে। এই যন্ত্রটির ফলে কুয়াশার মধ্যেও কোনো সিগন্যালের ব্যাপারে আগাম খবর পেয়ে যাবেন ট্রেন চালক।

প্রায় ছ’হাজারটি এমন যন্ত্র বিভিন্ন মেল, এক্সপ্রেস এবং প্যাসেঞ্জার ট্রেনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কয়েক দিনের মধ্যে আরও ৬০০টি এমন যন্ত্র তুলে দেওয়া হবে বিভিন্ন ট্রেনে। আগামী তিন মাসের মধ্যে আরও ৫,৪০০ যন্ত্র রেলের হাতে এসে পৌঁছোবে বলে জানানো হয়েছে।

এ ছাড়াও শীতকালে কুয়াশাপ্রবণ এলাকাগুলিতে ফগম্যান নিয়োগ করবে রেল। তাঁরা রেললাইনে ডিটোনেটোর রেখে দেবেন। এই যন্ত্রটি কোনো ট্রেন যাওয়ার সময়ে বিশেষ শব্দ তৈরি করবে। সেই শব্দের ফলে স্বয়ংক্রিয় সিগন্যালটি আংশিক স্বয়ংক্রিয় হয়ে যাবে। এ ছাড়াও ট্রেন চালক এবং স্টেশনকর্মীদের হাতে ওয়াকিটকি দেওয়া হবে। কুয়াশার মধ্যেই নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করতে পারবেন ট্রেন চালক এবং নিকটবর্তী স্টেশনের কর্মীরা।

এখন দেখার এত কিছু ব্যবস্থায় অবশেষে ট্রেন-বিলম্ব থেকে মুক্ত হওয়া যায় কি না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here