representational pic
প্রতীকী ছবি। সৌজন্যে জি বিজনেস।

নয়াদিল্লি: সপ্তম বেতন কমিশন যে সব ভাতা সুপারিশ করেছে রেলকর্মীরা এখনও পর্যন্ত তা পাচ্ছেন না। এরই প্রতিবাদে রেলের ‘রানিং স্টাফ’রা ‘ওয়ার্ক টু রুল’ নীতি নিতে চলেছেন। অর্থাৎ তাঁরা ‘নিয়মমাফিক কাজ’ করবেন। ১১ ডিসেম্বর থেকে কাজের সময়ের বাইরে আর তাঁরা কাজ করবেন না। ফলে সমস্যায় পড়তে পারেন রেলযাত্রীরা।

‘রানিং স্টাফ’ মানে যাঁরা ট্রেন চালানোর সঙ্গে সরাসরি যুক্ত অর্থাৎ ড্রাইভার, গার্ড, ট্রেন আটেন্ড্যান্ট প্রভৃতি। জানা গিয়েছে, ভারতীয় রেল বিভাগে রয়েছে দু’ লক্ষ কর্মীর অভাব। ফলে সেই ঘাটতি পূরণ করার জন্য কর্মীদের কাজ করতে হয় সময়ের থেকে অনেক বেশি। কিন্তু এর পরেও সপ্তম বেতন কমিশনের সুপারিশমাফিক তাঁরা ভাতা পাচ্ছেন না।

দ্য অল ইন্ডিয়া রেলওয়েমেন ফেডারেশন তাদের বৈঠকে ঠিক করেছে, দাবি পূরণের জন্য ৪৫ দিন সময় দেওয়া হবে রেল মন্ত্রককে। দাবি না মিটলে তাঁরা ‘রেল রোকো’র পথেও যেতে পারেন।

‘নিয়মমাফিক কাজ’ কী?

কর্মীঘাটতি পূরণ করতে রেলের কর্মীরা অতিরিক্ত সময় কাজ করেন। কর্মীরা ‘ওয়ার্ক টু রুল’ তথা ‘নিয়মমাফিক কাজ’ করলে অতিরিক্ত সময় কাজ করবেন না। ফলে রেলের কাজ বিঘ্নিত হবে।

রবিবার জাতীয় শিক্ষাদিবস: মৌলানা আবুল কালাম আজাদ সম্পর্কে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here