প্রতীকী ছবি।

ওয়েবডেস্ক: আগামী ১৪ নভেম্বর দিল্লি থেকে চেন্নাইয়ের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করার কথা প্রথম রামায়ণ এক্সপ্রেসের। কিন্তু তার আগেই আরও তিনটে রামায়ণ এক্সপ্রেসের কথা ঘোষণা করে দিল ভারতীয় রেল।

এই তিনটে ট্রেন রওনা হবে যথাক্রমে রাজকোট, জয়পুর এবং মাদুরাই থেকে। চারটে ট্রেনের যাত্রা পথে থাকবে অযোধ্যা।

রামায়ণের সঙ্গে কোনো না কোনো ভাবে যুক্ত মহারাষ্ট্রের নন্দিগ্রাম, নাসিক, বিহারের সীতামাঢ়ি, জনকপুর, উত্তরপ্রদেশের বারাণসী, ইলাহাবাদ, চিত্রকূট, কর্নাটকের হাম্পি এবং তামিলনাড়ুর রামেশ্বরম শহরগুলি বা তাদের নিকটবর্তী রেলস্টেশনে পৌঁছোবে এই ট্রেন। প্রতিবেশী দেশ শ্রীলঙ্কায়ও নিয়ে যাওয়ার কথা পর্যটকদের।

তবে যাত্রীদের দাবি মেনে অন্যান্য কিছু স্টেশনেও এই ট্রেন দাঁড়াতে পারে। দিল্লি-চেন্নাই রামায়ণ এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরুর দিন, অর্থাৎ ১৪ নভেম্বরই মাদুরাই থেকেও যাত্রা শুরু করবে রামায়ণ এক্সপ্রেস। ভারত ও শ্রীলঙ্কা মিলিয়ে মোট ১৬ দিনের ট্যুর।

আরও পড়ুন রাতে পাহাড়ি পথে ভ্রমণ নয়, পরামর্শ পূর্ব হিমালয়ের ট্যুর অপারেটরদের

এক একটি ট্রেন এক সঙ্গে ৮০০ জন যাত্রীকে নিয়ে যেতে পারবে। দিল্লি থেকে যাত্রা শুরু করা রামায়ণ এক্সপ্রেসে জনপ্রতি খরচ ১৫,১২০ টাকা। মাদুরাই থেকে যাত্রা শুরু করা ট্রেনে জনপ্রতি খরচ ১৫,৮৩০ টাকা। এই খরচ অবশ্য শুধু ভারত অংশের জন্য।

রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ২২ নভেম্বর জয়পুর এবং ৭ ডিসেম্বর রাজকোট থেকে যাত্রা সূচনা হবে রামায়ণ এক্সপ্রেসের। রেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ধর্মীয় পর্যটনের প্রতি মানুষের আগ্রহ যথেষ্ট বেশি রয়েছে। এই পরিস্থিতিকে কাজে লাগিয়ে রেলের আয় বাড়ানোর জন্যই নতুন তিনটে রামায়ণ এক্সপ্রেস নামাচ্ছে তারা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here