ওয়েবডেস্ক: নেপাল এবং শ্রীলঙ্কার বাধায় থমকে যেতে পারে পাকিস্তানকে কূটনৈতিক ভাবে একঘরে করার জন্য ভারতের চেষ্টা। এমনই মনে করেছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সার্ক সদস্যভুক্ত দেশগুলির কাছে আবেদন করেছে ভারত। মূল দাবি, সার্ক থেকে সাময়িক অথবা বরাবরের জন্য পাকিস্তানের সদস্যপদ সাসপেন্ড করে দেওয়া।

কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত নিতে গেলে সার্কের সমস্ত দেশকেই একমত হতে হয়। এ ক্ষেত্রে পাকিস্তানকে একঘরে করার ব্যাপারে সদস্যদের ঐক্যমত্য কার্যত অসম্ভব।

ভারতের প্রাক্তন বিদেশ সচিব কাঁওয়াল সিবাল বলেন, নেপালের সঙ্গে পাকিস্তানের কূটনৈতিক সম্পর্ক যথেষ্ট ভালো। পাশাপাশি চিনকে সার্কের সদস্যভুক্ত করার জন্য পাকিস্তানের দাবিকে সমর্থন করেছে নেপাল।

পাশাপাশি শ্রীলঙ্কাকে প্রতিরক্ষার দিক থেকে যথেষ্ট সহায়তা করছে পাকিস্তান। ফলে নেপাল এবং শ্রীলঙ্কা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মত দেবে না, সেটা একপ্রকার নিশ্চিত।

আরও পড়ুন বালুচিস্তানে পাকিস্তানি সেনার কনভয়ে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ৯ জওয়ান

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করা হবে বলে আগেই জানিয়েছে বাংলাদেশ, ভুটান এবং আফগানিস্তান।

উল্লেখ্য, ২০১৬-এ উরিতে হামলার পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তানে আয়োজিত সার্ক সম্মেলন থেকে নাম তুলে নেয় ভারত। ভারতের দেখাদেখি বাংলাদেশ, ভূটান এবং আফগানিস্তানও জানিয়ে দেয়, তারা সার্কে যাবে না। পরে সেই সম্মেলন বাতিলই হয়ে যায়।

কিন্তু নেপাল এবং শ্রীলঙ্কাকে ভারত যদি বোঝাতে না পারে, তা হলে পাকিস্তানকে একঘরে করার সম্ভাবনা যে নেই, সেটা একপ্রকার নিশ্চিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here