Connect with us

দেশ

মানবশরীরে পরীক্ষার অনুমতি পেল ভারতের প্রথম কোভিড ১৯ টিকা কোভ্যাক্সিন

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভারতে তৈরি একমাত্র টিকা কোভ্যাক্সিন (COVAXIN) মানবশরীরে পরীক্ষার অনুমোদন পেল। ভারতে করোনাভাইরাসের এই প্রতিষেধকটি তৈরি করছে ভারত বায়োটেক (Bharat Biotech)।

কোভ্যাক্সিন তৈরিতে ভারত বায়োটেককে সহযোগিতা করছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর, ICMR) ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি (এনআইভি)। মানবশরীরে কোভ্যাক্সিন–এর প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা (human clinical trials) চালানোর অনুমতি দিয়েছে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনেরাল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই, DCGI)। আশা করা যায়, আসন্ন জুলাই মাসেই এই পরীক্ষা শুরু হবে।

আরও পড়ুন: টিকা তৈরির দৌড়ে এগিয়ে ব্রিটিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা, বলল হু

Loading videos...

পুনের এনআইভি-তে (NIV) সার্স-কোভ-২ স্ট্রেনকে আলাদা করা হয় এবং তা পাঠিয়ে দেওয়া হয় ভারত বায়োটেকে। সর্বাধিক জৈব নিরাপত্তায় এই দেশজ টিকা তৈরি হচ্ছে হায়দরাবাদের জেনোম ভ্যালিতে ভারত বায়োটেকের হাইকনটেনমেন্ট ব্যবস্থার মধ্যে।

টিকাটির প্রি-ক্লিনিক্যাল সমীক্ষা এবং নিরাপত্তা ও প্রতিরোধ ক্ষমতা সংক্রান্ত সমীক্ষার ফল কোম্পানি জমা দেওয়ার পরেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের অধীন সেন্ট্রাল ড্রাগ স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের (সিডিএসসিও, CDSCO) ডিসিজিআই মানবশরীরে প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা চালানোর অনুমতি দিয়েছে।

টিকা তৈরি হওয়ার কথা ঘোষণা করে ভারত বায়োটেকের চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর ড. কৃষ্ণ এল্লা বলেন, “কোভিড ১৯ (COVID 19) প্রতিরোধী ভারতের প্রথম দেশজ টিকা কোভ্যাক্সিন-এর কথা ঘোষণা করতে পেরে আমরা গর্বিত। এই টিকা তৈরির কাজে আইসিএমআর এবং এনআইভি-র সহযোগিতা আমাদের সহায়ক হয়েছে। সিডিএসসিও-এর সক্রিয় সমর্থন এবং পথপ্রদর্শন এই প্রকল্পে অনুমোদন পেতে আমাদের সাহায্য করেছে। মালিকানাগত যে প্রযুক্তি আমাদের অধিকারে আছে, তা এ ব্যাপারে কাজে লাগাতে আমাদের রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট টিম এবং উৎপাদক টিম অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে।”

পোলিও, র‍্যাবিস, জাপানিজ এনসেফেলাইটিস, জিকা ও চিকুনগুনিয়ার মতো বিভিন্ন ভাইরাসঘটিত রোগের টিকা উদ্ভাবনের খ্যাতি আছে ভারত বায়োটেকের।

দেশ

দিল্লি এবং আরও ৩ রাজ্য থেকে মহারাষ্ট্রে ঢুকতে গেলে লাগবে কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট

এই সব জায়গা থেকে যাঁরা বিমানে মহারাষ্ট্রে আসছেন, বিমানবন্দরে নেমেই তাঁদের আরটি-পিসিআর রিপোর্ট দেখাতে হবে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত এক-দু’মাসে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) কোভিড (Covid 19) সংক্রমণ। সেটা যাতে নতুন করে হাতের বাইরে না চলে যায় সে কারণে নতুন বিধিনিষেধ জারি করল সে রাজ্যের সরকার। তাদের সাফ কথা, দিল্লি এবং আরও তিনটে রাজ্যে থেকে মহারাষ্ট্রে ধুঁকতে গেলে কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক।

এই বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যসচিব সঞ্জয় কুমার। দিল্লি ছাড়াও এই তালিকায় রয়েছে রাজস্থান, গুজরাত এবং গোয়া।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, এই সব জায়গা থেকে যাঁরা বিমানে মহারাষ্ট্রে আসছেন, বিমানবন্দরে নেমেই তাঁদের আরটি-পিসিআর রিপোর্ট দেখাতে হবে। যাত্রা শুরুর সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টা আগে করা করোনা পরীক্ষার রিপোর্টই গ্রহণযোগ্য হবে। একই ভাবে ট্রেনে মহারাষ্ট্রে আসা ব্যক্তিদেরও কোভিড-নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে হবে।

Loading videos...

ট্রেনযাত্রীদের ক্ষেত্রে যাত্রা শুরুর সর্বোচ্চ ৯৬ ঘণ্টা আগে করা করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট গ্রহণযোগ্য হবে। এ ছাড়া, সড়কপথে যাঁরা মহারাষ্ট্রে ঢুকছেন বর্ডার চেকপোর্টে তাঁদের থার্মাল স্ক্রিনিং হবে। যদি কারও শরীরে করোনার উপসর্গ ধরা পড়ে, তা হলে তাঁদের কোভিড কেয়ার সেন্টারে পাঠানো হবে। এ ক্ষেত্রে নিজের পকেট থেকেই সব খরচ করতে হবে।

করোনায় মৃত ও আক্রান্তের নিরিখে দেশের শীর্ষে মহারাষ্ট্র। সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যাও এ রাজ্যে সবচেয়ে বেশি। তবে এখন পরিস্থিতির অনেকটাই উন্নতি হচ্ছে। অন্যদিকে রাজধানী দিল্লিতে সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। করোনার এই তৃতীয় ঢেউই এখন দিল্লিকে সব থেকে বেশি বিপর্যস্ত করে দিয়েছে।

একই সঙ্গে রাজস্থান, গুজরাত এবং গোয়ায় সংক্রমণ যে হারে বাড়ছে সেটা যথেষ্ট উদ্বেগের। এই সব কারণের জন্যই এখন এমন সিদ্ধান্ত নিল মহারাষ্ট্র সরকার।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

‘যা করতে হয় করুন’, পরাজয় প্রায় স্বীকারই করে ফেললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

Continue Reading

দেশ

অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ প্রয়াত

উল্লেখ্য গত ২৫ আগস্ট কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়েছিলেন গগৈ। প্রায় দু’মাস হাসপাতালে ভরতি থাকার পর গত ২৫ অক্টোবর ছাড়া পান। কিন্তু এক সপ্তাহের বেশি বাড়িতে থাকতে পারেননি তিনি।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ (Tarun Gogoi) মারা গেলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্বশর্মা সোমবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ তাঁর মৃত্যুসংবাদ জানান।

উল্লেখ্য গত ২৫ আগস্ট কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়েছিলেন গগৈ। প্রায় দু’মাস গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি থাকার পর গত ২৫ অক্টোবর ছাড়া পান। কিন্তু এক সপ্তাহের বেশি বাড়িতে থাকতে পারেননি তিনি। গত ২ নভেম্বর ফের হাসপাতালে ভরতি করাতে হয় তাঁকে।

এর পর তাঁর শারীরিক অবস্থার ধীরে ধীরে অবনতি হতে থাকে। তাঁর বেশ কিছু অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কাজ না করায় ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রাখা হয়। সোমবার সকালে হাসপাতালে যান শর্মা। তিনি সাংবাদিকদের বলেন,  “প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। তাঁকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। তাঁর জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করছি।”

Loading videos...

অন্য দিকে গগৈয়ের মৃত্যু সংবাদ শুনে ডিব্রুগড়ে নিজের নির্ধারিত কর্মসূচি বাতিল করে ফিরে আসছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোওয়াল। টুইটারে তিনি জানান, গগৈ তাঁর পিতৃসম। এই কঠিন সময়ে তাঁর পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য গুয়াহাটি ফিরে আসছেন।

গগৈয়ের শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে দেখে তাঁকে সুস্থ করে তোলার সব রকম চেষ্টা করেছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এমনকি সাউন্ড সিস্টেমের ব্যবস্থা করে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর ভাষণ এবং ভূপেন হাজারিকার গানও শোনানো হচ্ছিল তাঁকে।

কিন্তু কোনো কিছুই কাজে দিল না। গগৈয়ের মৃত্যুতে অসমের পাশাপাশি, গোটা দেশের রাজনীতিতেই একটা যুগের অবসান হল।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

ডিসেম্বর থেকে ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’, নয়া প্রকল্পের ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading

দেশ

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে সাউথ আফ্রিকায় প্রয়াত মহাত্মা গান্ধীর প্রপৌত্র

মহাত্মা গান্ধীর ছেলে মণিলাল গান্ধীর তিন সন্তানের মধ্যে একজন ছিলেন সীতা ধৈর্যবালা গান্ধী। শশীকান্ত ধুপেলিয়াকে বিয়ের পর তিনি সাউথ আফ্রিকার ডারবানে চলে যান। তাঁর ৩ সন্তানের মধ্যে সতীশ একজন।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন মহাত্মা গান্ধীর (Mahatma Gandhi) সতীশ ধুপেলিয়া (Satish Dhupelia)। বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। সাউথ আফ্রিকায় থাকতেন তিনি।

সতীশের দিদি উমা ধুপেলিয়া রবিবার ভাইয়ের মৃত্যুর খবর জানিয়েছেন। জানা গিয়েছে, এক মাস ধরে নিউমোনিয়ায় ভুগছিলেন তিনি। ধুপেলিয়ার কথায়, “হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালীনই কোভিডে আক্রান্ত হন। রবিবার সন্ধ্যায় তাঁর হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে পড়ায় মৃত্যু হয়েছে।’’

মহাত্মা গান্ধীর ছেলে মণিলাল গান্ধীর তিন সন্তানের মধ্যে একজন ছিলেন সীতা ধৈর্যবালা গান্ধী। শশীকান্ত ধুপেলিয়াকে বিয়ের পর তিনি সাউথ আফ্রিকার ডারবানে চলে যান। তাঁর তিন সন্তানের মধ্যে সতীশ একজন।

Loading videos...

সতীশ দীর্ঘদিন সাউথ আফ্রিকার সংবাদমাধ্যমে চিত্রগ্রাহক হিসাবে কাজ করেছেন। এ ছাড়া তিনি কাজ করেছেন গান্ধী ডেভেলপমেন্ট ট্রাস্টের হয়েও। ডারবানে মহাত্মা গান্ধীর আদর্শ প্রচার ও সমাজের কাজ করছিলেন তিনি।

বিশিষ্ট সমাজকর্মী হিসেবেই খ্যাতি অর্জন করেন তিনি। সতীশের মৃত্যুর পর উমা ধুপেলিয়া ছাড়াও গান্ধী বংশের আরও এক সন্তান রয়ে গেলেন। তিনি কীর্তি মেনন। তাঁর বাড়ি জোহানেসবার্গে। 

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

আমেরিকার আগেই ফাইজারের কোভিড টিকায় ছাড়পত্র দিতে পারে ব্রিটেন

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য56 seconds ago

আচমকা মেঘের আনাগোনা, থমকে গেল পারদ-পতন

দেশ29 mins ago

দিল্লি এবং আরও ৩ রাজ্য থেকে মহারাষ্ট্রে ঢুকতে গেলে লাগবে কোভিড নেগেটিভ রিপোর্ট

Donald Trump
বিদেশ49 mins ago

‘যা করতে হয় করুন’, পরাজয় প্রায় স্বীকারই করে ফেললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

মালদা7 hours ago

মালদহের মানিকচকে ভেসেল উলটে ৮টি ট্রাক পড়ল গঙ্গায়, বেশ কিছু মানুষ নিখোঁজ

ফুটবল8 hours ago

পেনাল্টি কাজে লাগিয়ে প্রথম ম্যাচে ৩ পয়েন্ট ঘরে তুলল হায়দরাবাদ

রাজ্য12 hours ago

রাজ্যের নতুন সংক্রমণ নেমে এল সাড়ে তিন হাজারের ঘরে, কমল দৈনিক মৃত্যুও

বন্ধন ব্যাঙ্ক
শিল্প-বাণিজ্য12 hours ago

এবার কলকাতা মেট্রোর স্মার্ট কার্ডে থাকবে বন্ধন ব্যাঙ্কের লোগো

বিদেশ15 hours ago

যুদ্ধ বাধাতে পারেন ‘দুর্বল’ জো বাইডেন, আশঙ্কা করছে চিন

দেশ24 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৪৪০৫৯, সুস্থ ৪১০২৪

শিক্ষা ও কেরিয়ার3 days ago

কোন রাজ্য ফের স্কুল খুলেছে, কোথায় এখনও বন্ধ? জেনে নিন বিস্তারিত

ভ্রমণ কথা2 days ago

রূপসী বাংলার সন্ধানে ১/ অবাক করল তাজপুর

বিনোদন2 days ago

রবিবারের পড়া: শহর ছেড়ে তুমি কি চলে যেতে পারো তিন ভুবনের পারে

ফুটবল3 days ago

প্রথম বিদেশি হিসেবে আইএসএলে অনন্য রেকর্ড করলেন সবুজ মেরুনের তিরি

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

কেন খাবেন কামরাঙা? ১৩টি কারণ জেনে নিন

ঘরদোর3 days ago

ওয়াশিং মেশিন ব্যবহারের আগে ৫টি জরুরি তথ্য, যা আপনার অবশ্যই জানা উচিত

বিনোদন3 days ago

সন্ত্রাসবাদ থেকে শিশুদের উদ্ধার করতে শরণার্থী শিবিরে সঞ্জয় দত্ত, দেখুন ‘তোরবাজ’-এর ট্রেলার

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা6 days ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 months ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা2 months ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

নজরে