Connect with us

দেশ

কোভিডের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর এই প্রথম ভারতে ‘আর নম্বর’ নামল ১-এর নীচে

‘আর নম্বর’ হল সংক্রমণের হার মাপার একটি গাণিতিক হিসেব। এক জন করোনা রোগী কত জন সুস্থ মানুষকে সংক্রমিত করছেন আর সেই সংখ্যার হিসেবে হার কতটা বাড়ছে, সেটাই হিসেব হয় এই নম্বরটি দিয়ে।

Published

on

coronavirus
সব থেকে বেশি প্রভাবিত রাজ্যগুলিতে 'আর নম্বর' ১-এর নীচে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত এক সপ্তাহ ধরে ভারতে দৈনিক কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপিয়ে যাচ্ছে সুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা। সেটাই এ বার প্রতিফলিত হল করোনার ‘আর নম্বর’ (R Number)-এ। ভারতে গত মার্চ থেকে কোভিডে (Covid 19) বাড়বাড়ন্ত শুরু হওয়ার পর এই প্রথম বার আর নম্বরটি ১-এর নীচে নেমেছে।

বর্তমানে ভারতে ‘আর নম্বর’ নেমেছে ০.৯৩-তে। গত সপ্তাহে এই নম্বরটি ছিল ১.০৮। এমনই জানিয়েছন চেন্নাইয়ের ইন্সটিটিউট অব ম্যাথামেটিকাল সায়ান্সেসের (আইএমএস) গবেষক অধ্যাপক সীতভ্র সিনহা।

এই প্রসঙ্গেই অধ্যাপক সিনহা বলেন, “আমরা এখনও নতুন সংক্রমণ দেখব। কিন্তু এই মুহূর্তে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল যে সুস্থতার সংখ্যা, নতুন আক্রান্তের সংখ্যার থেকে বেশি। এই ‘আর নম্বর’ যদি ১-এর নীচে থাকে তা হলে কোভিডে সংক্রমণ ধীরে ধীরে শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু এখন সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল অনেকটা সময় ধরে এই নম্বরটাকে ১-এর নীচে আটকে রাখা।”

এই আর নম্বরটি আদতে কী?

এটি হল সংক্রমণের হার মাপার একটি গাণিতিক হিসেব। এক জন করোনা রোগী কত জন সুস্থ মানুষকে সংক্রমিত করছেন আর সেই সংখ্যার হিসেবে হার কতটা বাড়ছে, সেটাই হিসেব হয় এই নম্বরটি দিয়ে।

এই ‘আর নম্বর’টি তিনটে ফ্যাক্টরের ওপরে নির্ভর করে। প্রথমত, এক জন করোনা পজিটিভ রোগীর মধ্যে দিয়ে অন্য জনে সংক্রমণ ছড়িয়ে যাওয়ার ঝুঁকি কতটা, দ্বিতীয়ত, আক্রান্ত ও সংক্রমণের সন্দেহে থাকা ব্যক্তিরা কত জনের সংস্পর্শে আসছেন তার গড় হিসেব, তৃতীয়ত, এক জনের থেকে সংক্রমণ কত জনের মধ্যে এবং কত দিনে ছড়াচ্ছে তার গড় হিসেব।

‘আর নম্বর’ ১-এর নীচে চলে আসা মানে করোনার ওপরে নিয়ন্ত্রণ আসা, এমনটা মনে করেন গবেষকরা। তাঁদের দাবি, এমনটা হলে একজন সংক্রমিত ব্যক্তির থেকে একজন সুস্থ ব্যক্তির সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না।

সব থেকে বেশি প্রভাবিত রাজ্যগুলিতে ‘আর নম্বর’ ১-এর নীচে

ভারতে কোভিডে দাপট যে পাঁচটা রাজ্যে সব থেকে বেশি, সেই সব রাজ্যেই ‘আর নম্বর’ কমেছে ১-এর নীচে। মহারাষ্ট্রে এই নম্বরটি বর্তমানে ০.৮৬ শতাংশে মহারাষ্ট্রে বর্তমানে ‘আর নম্বর’ নেমে এসেছে ০.৮৬-এ। গত সপ্তাহেই সেটা ছিল ১.১৭। কর্নাটকে গত এক সপ্তাহে ‘আর নম্বর’ ১.১৩ থেকে কমে হয়েছে ০.৯১।

অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু আর উত্তরপ্রদেশে ‘আর নম্বর’ যথাক্রমে রয়েছে ০.৯৫, ০.৯৯ এবং ০.৯৩।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দেশে ফের নতুন আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপাল সুস্থতা, সংক্রমণের হারেও কমছে ধীরে ধীরে

দেশ

হরিয়ানায় কলেজের সামনে তরুণীকে প্রকাশ্যে গুলি করে মারার দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি, ধৃত ২

রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন তরুণী। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: প্রকাশ্য দিবালোকে এক ২১ বছর বয়সি তরুণীকে গুলি করে মারল এক ব্যক্তি। প্রথমে জোর করে নিজের গাড়িতে তোলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পর গুলি চালায় সে। ঘটনাটি হরিয়ানার বল্লভগড়ের।

দিল্লি থেকে মাত্র ৩০ কিমি দূরে একটি কলেজের সামনে তরুণীকে গুলি করে মারার দৃশ্যটি ধরা পড়েছে ক্যামেরায়। পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলিবিদ্ধ হওয়ার আগে তরুণী নিজেকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন।

ঘটনায় প্রকাশ, ফরিদাবাদের বল্লভগড়ের একটি কলেজে সোমবার পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলেন নিকিতা তোমর নামের ওই তরুণী। তিনি বাণিজ্য বিভাগের চূড়ান্তবর্ষের ছাত্রী। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে, আক্রমণকারী তৌসিফ এবং তার বন্ধু রেহান একটি গাড়িতে বসে অপেক্ষা করছিল। সেই গাড়ির সামনে দিয়ে সহপাঠীদের সঙ্গে নিকিতা যাওয়ার সময়ই হামলা চালানো হয়।

ভিডিয়োয় দেখা যায়, আক্রমণকারী নিকিতাকে তাড়া করছে। শেষমেশ নিকিতার উপর গুলি চালায় সে। এর পর বন্ধুটি এসে আক্রমণকারীকে গাড়িতে তুলে নিয়ে চলে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন তরুণী। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনায় অভিযুক্ত দু’জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল অভিযুক্ত তৌসিফকে চিহ্নিত করা হয়েছে। হরিয়ানার পুলিশ কমিশনার সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, “নিহত তরুণীর পরিবার ২০১৮ সালে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরে তা মিটমাট করে নেওয়া হয়। নিকিতাকে অপহরণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছিল। পরে পরিবার পুলিশকে জানায়, এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ যেন না নেওয়া হয়। তবে এখন আমরা তৌসিফকে গ্রেফতার করেছি”।

অন্যদিকে তরুণীর পরিবার এই ঘটনার সঙ্গে ‘লাভ জিহাদে’র সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেছেন। নিহত তরুণীর বাবা সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর কাছে বলেন, অভিযুক্ত তাঁর মেয়েকে জোর করে গাড়িতে তোলার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু তরুণী তা প্রত্যাখ্যান করে এবং তার পরে সে তাঁকে গুলি করে মারা হয়।

আরও পড়তে পারেন: সরছে না হাথরস মামলা, সিবিআই তদন্তে এলাহাবাদ হাইকোর্টকে নজরদারির দায়িত্ব দিল সুপ্রিম কোর্ট

Continue Reading

দেশ

সরছে না হাথরস মামলা, সিবিআই তদন্তে এলাহাবাদ হাইকোর্টকে নজরদারির দায়িত্ব দিল সুপ্রিম কোর্ট

তদন্তের প্রাথমিক অবস্থায় মামলাটি অন্যত্র সরানোর পক্ষপাতী নয় সুপ্রিম কোর্ট!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের হাথরসে এক বছর কুড়ির তরুণীর গণধর্ষণ এবং খুনের মামলায় সিবিআই তদন্ত-সহ অন্য়ান্য বিষয়গুলিতে এলাহাবাদ হাইকোর্টকে নজরদারির দায়িত্ব দিল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার সর্বোচ্চ আদালত জানায়, এক বার তদন্ত শেষ হলে, উত্তরপ্রদেশের বাইরে ট্রায়ালের কথা চিন্তাভাবনা করা হবে।

মামলাটিকে উত্তরপ্রদেশের বাইরে স্থানান্তরের আবেদন জমা পড়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। এ দিন প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানায়,”মামলাটির স্থানান্তকরণের বিষয়ে এটাই ভালো হবে, যদি তদন্তকারী সংস্থা আগে তদন্ত শেষ করে নেয়”।

মামলাটি (Hathras Case) রাজ্যের মধ্যে বিচারাধীন থাকলে ন্যায্য বিচার পাওয়ার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আবেদন জমা পড়ে সুপ্রিম কোর্টে। সুষ্ঠু বিচারের পক্ষে মামলাটিকে অন্যত্র স্থানান্তরের আবেদন জানানো হয়। এ প্রসঙ্গে রায় দিতে গিয়ে সুপ্রিম কোর্ট বলে, তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই নিয়মিত এলাহাবাদ হাইকোর্টে (Allahabad High Court) তদন্তের স্ট্যাটাস রিপোর্ট দাখিল করবে।

প্রধান বিচারপতি ছাড়াও সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) বিচারপতি এ এস বোপান্না ও বিচারপতি ভি রামসুব্রহ্মণ্যমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চটিও এলাহাবাদ হাইকোর্টকে সেখানে বিচারাধীন একটি জনস্বার্থ মামলার রায়ের কপি থেকে নাম মুছে দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ সেপ্টেম্বর হাথরসের এক বছর কুড়ির দলিত তরুণীকে গণধর্ষণ এবং খুনের অভিযোগ ওঠে চার উচ্চবর্ণের ব্যক্তির বিরুদ্ধে। নির্যাতিতা পরে দিল্লির একটি হাসপাতালে মারা যাওয়ার পর গত ৩০ সেপ্টেম্বর তার বাড়ির কাছে একটি জায়গায় পরিবারকে না জানিয়েই মৃতদেহ পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে পুলিশ-প্রশাসনের বিরুদ্ধে।

আরও পড়তে পারেন: হাথরস-মামলায় ফরেন্সিক রিপোর্ট নিয়ে প্রশ্ন তোলা দুই চিকিৎসক বরখাস্ত

Continue Reading

দেশ

নীতীশ কুমারের থেকে দূরত্ব বাড়াচ্ছে বিজেপি? বিভিন্ন ঘটনায় জল্পনা

বুধবার প্রথম দফার নির্বাচন বিহারে। তার আগেই শাসক জোটে জগাখিচুড়ি দশা আরও স্পষ্ট।

Published

on

Nitish KUmar

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিহারে প্রথম দফার ভোট বুধবার। তার আগে কোনো কিছুই ঠিকঠাক নেই শাসক জোটের মধ্যে। বিভিন্ন ঘটনায় জল্পনা তৈরি হয়েছে যে নীতীশ কুমার (Nitish Kumar) এবং জেডিইউ-এর সঙ্গে দূরত্ব বাড়াচ্ছে বিজেপি।

সব থেকে বড়ো উদাহরণ হল গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) একাধিক নির্বাচনী প্রচারসভা। ওই সভাগুলিতে বার বার এনডিএ-এর জন্য ভোট চাইতে শোনা গিয়েছে মোদীর মুখ থেকে। শুধুমাত্র সভাগুলির শেষে, কার্যত নিয়মরক্ষার জন্য নীতীশ কুমারের কথা মুখে এনেছেন মোদী।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দুই শরিক আলাদা আলদা ভাবে প্রচারসভা আয়োজন করছে বিহারের বিভিন্ন জায়গায়। বিজেপি এবং জেডিইউ-এর যৌথ প্রচারসভা দেখাই যাচ্ছে না। শুধুমাত্র রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা সুশীল মোদী এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদকে জেডিইউ তথা নীতীশ কুমারের সভায় দেখা গিয়েছে।

এর মধ্যে সুশীল মোদী আবার কোভিডে (Covid 19) আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে অন্য শরিক থেকে কাউকেই আর পাচ্ছেন না নীতীশ।

আবার নির্বাচনের জন্য বিজেপি যে ভিডিও প্রচার শুরু করেছে তাতে কোথাও নীতীশ নেই। রাজ্য জুড়ে বিজেপি যে পোস্টার লাগিয়েছে তাতে শুধুমাত্র নরেন্দ্র মোদী রয়েছেন, নীতীশ নেই। আর জেডিইউ যে সব পোস্টার লাগিয়েছে তাতে শুধুই নীতীশ রয়েছেন, মোদী নেই।

নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ দু’ জনেই নীতীশ কুমারকে এনডিএ জোটের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন। অথচ গেরুয়া শিবিরের কোনো পোস্টারে নীতীশ নেই। বিজেপি নেতাদের কাছে এই ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তাদের কাছে কোনো সদুত্তরও নেই।

গত সপ্তাহে সাসারাম-সহ তিনটে জায়গায় প্রচারে আসেন মোদী। সেখানে বার বার এনডিএ-এর হয়ে ভোট চাইতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীকে। সভাগুলির শেষে গিয়ে নিয়মরক্ষার মতো নীতীশের নামোল্লেখ করেছেন তিনি। এর থেকে বোঝা যায় যে দুই শরিকের মধ্যে আগের রসায়ন একদমই নেই।

বিজেপি নেতারা ক্যামেরার আড়ালে অবশ্য বলছেন, এটা ইচ্ছাকৃত ভাবেই করা হচ্ছে। বিহারে নীতীশের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার হাওয়া ক্রমশ বাড়ছে। সেটা আন্দাজ করেই মুখ্যমন্ত্রীর থেকে দূরে সরে যাচ্ছে গেরুয়া শিবির।

ইদানীং বিরোধী আরজেডি, পরিষ্কার করে বললে, তেজস্বী যাদবের সভায় ব্যাপক ভিড় হচ্ছে, যা নীতীশের সভায় দেখা যাচ্ছে না। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, ভোটের কয়েক মাস আগেও যে হাওয়া নীতীশের পক্ষে ছিল, সেটা এখন ঘুরছে। অভিবাসী শ্রমিক ইস্যুতে নীতীশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ চরমে উঠেছে।

বিজেপি নেতারা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছেন, মোদীর নামে ভোট না চাইলে বিহারে এনডিএ-এর কোনো সম্ভাবনাই আসন্ন নির্বাচনে নেই। দলের নেতারা জেনেছেন, নীতীশের জনপ্রিয়তা অনেকটা কমে গেলেও, মোদীর জনপ্রিয়তা এখনও ঠিকঠাকই রয়েছে বিহারে।

সব মিলিয়ে বিহারের শাসক জোটে এখন জগাখিচুড়ি দশা। এক দিকে শরিক জেডিইউ-এর থেকে দূরত্ব বাড়াচ্ছে বিজেপি। অন্য দিকে এনডিএ-এর শরিক হয়েও শরিকনীতি না মেনে জেডিইউ-এর বিরুদ্ধে সব আসনে প্রার্থী দিচ্ছে চিরাগ পাসোয়ানের লোক জনশক্তি পার্টি।

আবার চিরাগ পাসোয়ান জানিয়ে দিচ্ছেন তিনি নীতীশকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরাতে চান, কিন্তু বিজেপিকে ক্ষমতায় দেখতে চান। ফলে বিহারের এনডিএপন্থী ভোটাররা ভোট তো দেবেন, কিন্তু কাকে দেবেন?

বিহারের নির্বাচনের আরও খবর পড়তে পারেন এখানে ক্লিক করে

Continue Reading

Amazon

Advertisement
বিনোদন7 mins ago

চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন না সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, আরও সংকট, জানালেন চিকিৎসক

দেশ41 mins ago

হরিয়ানায় কলেজের সামনে তরুণীকে প্রকাশ্যে গুলি করে মারার দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি, ধৃত ২

দেশ2 hours ago

সরছে না হাথরস মামলা, সিবিআই তদন্তে এলাহাবাদ হাইকোর্টকে নজরদারির দায়িত্ব দিল সুপ্রিম কোর্ট

বিদেশ3 hours ago

পাকিস্তানের মাদ্রাসায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত শিশু-সহ ৭, আহত অসংখ্য

বিনোদন4 hours ago

দেশের সব থেকে বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড কে?

মুর্শিদাবাদ4 hours ago

দশমীতে নৌকাডুবি বেলডাঙায়, মৃত ৫ যুবক

RBI
শিল্প-বাণিজ্য5 hours ago

মোরাটোরিয়াম: সুদের উপর সুদ ছাড়ে এ বার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশিকা

winter 2020
রাজ্য5 hours ago

উত্তুরে হাওয়ায় হালকা শিরশিরানি, কলকাতায় পারদ একুশে, সমতলে শীতলতম পুরুলিয়া

দেশ6 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৩৬৪৭০, সুস্থ ৬৩৪৮২

কলকাতা3 days ago

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে এ বার আর বিজয়া সম্মিলনী নয়

currency notes
শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

মোরাটোরিয়াম: কয়েক দিনের মধ্যেই অ্যাকাউন্টে বাড়তি সুদের টাকা ফেরত পাবেন গ্রাহক

ক্রিকেট3 days ago

সুনীল-নীতীশের ব্যাট তাণ্ডবের পর বরুণের ঘূর্ণি, দিল্লি-জয় করল কলকাতা

বিনোদন2 days ago

চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন না সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, শারীরিক অবস্থার অবনতি

দুর্গা পার্বণ3 days ago

দুর্গোৎসব বাংলাদেশে: রাজধানীর সব চেয়ে বড়ো দুর্গাপূজার আয়োজন রমনা কালীমন্দিরে

ক্রিকেট2 days ago

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরলেন কপিল দেব

কলকাতা2 days ago

বনেদিবাড়ির পুজোতেও নানা বিধিনিষেধ, সাবর্ণদের আটচালায় এ বার বন্ধ সিঁদুরখেলা কোলাকুলি

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা3 weeks ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা4 weeks ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা4 weeks ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা4 weeks ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা1 month ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা1 month ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 month ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 month ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

নজরে