নৌসেনার ‘গ্র্যান্ড ওল্ড লেডি’ আইএনএস বিরাট অবসর নিল

0
169

নয়াদিল্লি : দীর্ঘ তিশ বছর কাজ করার পর রি৬ মার্চ সোমবার অবসর নিল ভারতীয় নৌবাহিনীর বিমানপোত বহনকারী জাহাজ আইএনএস বিরাট। ইন্ডিয়ান নেভিতে আইএনএস বিরাটকে আনা হয় ১৯৮৭ সালে ১২ মে। এটি ‘দ্য ওল্ড গ্র্যান্ড লেডি’ নামে বিখ্যাত। এই জাহাজটির অবসরের সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় নৌসেনার একটি ঐতিহাসিক যুগের সমাপ্তি ঘটল বলে মনে করছেন অনেকেই। এই জাহাজটি কাজ বন্ধ করার ফলে দেশের সামুদ্রিক প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে এই ধরনের দু’টি জাহাজের ঘাটতি হল। এর আগে ১৯৯৭ সালে আইএনএস বিক্রান্ত অবসর নেয়। 

এই বিশাল জাহাজটি প্রথমে ছিল  ব্রিটিশ নৌবাহিনীর জাহাজ। তখন এর নাম ছিল এইচএমএস হেরমেস। ১৯৫৯ সাল থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত এই জাহাজটি ছিল ব্রিটিশ রয়্যাল নেভির অধীনেই। ব্রিটিশ নৌবাহিনী জাহাজটি বাতিল করে দেওয়ার সময় ভারত সরকার এটি কিনে নেয়। দাম লেগেছিল ছ’ কোটি পঞ্চাশ লাখ টাকা। বিশাল এই যুদ্ধজাহাজটি তৈরি করা হয় ১৯৪৩ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে। 

আইএনএস বিরাটের ওজন ২৮ হাজার ৭০০ টন। লম্বায় ২২৬.৫ মিটার, চওড়ায় ৪৮.৭৮ মিটার। এতে বহাল ছিলেন ১৫০ জন অফিসার আর দেড় হাজার সেনা। 

আইএনএস বিরাটকে বহরের অন্তর্ভুক্ত করার উদ্দেশ্য ছিল, ‘জলমেব যস্য, বলমেব তস্য’ অর্থাৎ যে সমুদ্র নিয়ন্ত্রণ করে সে-ই সর্বশক্তিমান। ১৯৮৯ সালে অপারেশন জুপিটার, ২০০১-০২ সালে অপারেশন কারাকোরাম-সহ বেশ কয়েকবার কাজে লাগানো হয় আইএনএস বিরাটকে।   

এ দিন ‘গ্র্যান্ড ওল্ড লেডি’র বিদায়ী অনুষ্ঠানে ছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পরিক্কর। অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার জানায়, এর অবসরের পর এটিকে নৌবাহিনীর একটি স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে সংরক্ষিত করা হবে। এটিতে জাদুঘর গড়ে তোলা হবে। এর আগে খবর ছিল, অন্ধ্র সরকার এটিকে বিলাসবহুল হোটেল কাম মিউজিয়াম করতে চায়।

এখন ভারতীয় নৌসেনার হাতে রইল একটি মাত্র বিমানপোত বহনকারী জাহাজ। নাম আইএনএস বিক্রমাদিত্য। 

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here