jio institute

ওয়েবডেস্ক: সোমবার ছ’টি সরকারি এবং বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ‘উৎকর্ষ প্রতিষ্ঠানের’ তকমা দিয়েছে কেন্দ্র। বিতর্ক তৈরি হয়েছে প্রস্তাবিত জিও ইন্সটিটিউটকেও এই তকমা দেওয়ায়। বিরোধীদের দাবি, যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটি এখনও তৈরিই হয়নি তাকে কী ভাবে উৎকর্ষ প্রতিষ্ঠানের তকমা দেওয়া যায়।

বিভিন্ন মহল থেকে প্রবল চাপের পরে অবশেষে কিছুটা ঢোক গিলেছে কেন্দ্র। জানিয়ে দিয়েছে, জিও ইন্সটিটিউটকে শুধুমাত্র ‘লেটার অফ ইন্টেন্ট’ বা সংকল্পের চিঠি দেওয়া হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রের শিক্ষাসচিব আর সুব্রহ্মণ্যম বলেন, “জিও ইন্সটিটিউটকে উৎকর্ষ প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা দেওয়া হয়নি। শুধু মাত্র ‘লেটার অফ ইন্টেন্ট’ দেওয়া হয়েছে। আগামী তিন বছরের মধ্যে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যদি তৈরি হয়ে যায় তা হলেও তাদের এই মর্যাদা দেওয়া হবে।”

এই উৎকর্ষ প্রতিষ্ঠানের খবর সোমবার কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর টুইটারে ঘোষণা করেন। তার পরেই বিভিন্ন মহল থেকে তাঁকে তুলোধোনা করা হয়। তোপ দাগে কংগ্রেসও। তাদের তরফ থেকে টুইটারে জানানো হয়, “আবার মুকেশ এবং নিতা আম্বানির সুবিধা করে দিল কেন্দ্র।”

তার পরেই তড়িঘড়ি এই সাফাই কেন্দ্রীয় সরকারের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here