অনশন ভাঙছেন শর্মিলা চানু, ভোটে লড়বেন

0

১৬ বছর পর অনশন ভাঙতে চলেছেন ইরম শর্মিলা চানু। শুধু তা-ই নয়, শর্মিলা এ বার মণিপুরের নির্বাচনেও লড়বেন।

মঙ্গলবার ইম্ফলের এক স্থানীয় আদালতে হাজিরা দেওয়ার পর বাইরে বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের শর্মিলা বলেন, “এখন বিশ্বাস করি অনশন করে আফস্পা প্রত্যাহারের দাবি পূরণে বাধ্য করা যাবে না। কিন্তু লড়াই আমি চালিয়ে যেতে চাই। তাই ৯ আগস্ট অনশন ভেঙে রাজনীতিতে যোগ দেব।”  

সশস্ত্র বাহিনী বিশেষ ক্ষমতা আইন তথা ‘আফস্পা’ তুলে নেওয়ার দাবিতে ২০০০ সাল থেকে শর্মিলা অনশন চালাচ্ছেন। ওই বছরের নভেম্বরে মালম শহরে আসাম রাইফেলসের গুলিতে ১০ জন অসামরিক ব্যক্তি মারা যান। এঁদের মধ্যে এমন এক জন ছিলেন যিনি জাতীয় শিশু সাহসিকতা পুরস্কার পেয়েছিলেন। এই ঘটনা ‘মালম গণহত্যা’ নামে খ্যাত। মালমের ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে ২৮ বছরের শর্মিলা অনশন শুরু করেন। তাঁর দাবি ছিল ‘আফস্পা’ তুলে নিতে হবে।

শর্মিলাকে ইম্ফলের জওহরলাল নেহরু হাসপাতালে এক বিশেষ ওয়ার্ডে আটক রেখে নাকের মধ্য দিয়ে নল চালিয়ে জোর করে খাওয়ানো হয়েছে ১৪ বছর ধরে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, খাবার না খেয়ে তিনি আত্মহত্যার পরিকল্পনা করেছেন। কোর্টের নির্দেশে হাসপাতালের বন্দিদশা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর শর্মিলা নাকের নল জোর করে খুলে দেন। সেই সময়ে এক বার অনশন ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন শর্মিলা। অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি তাঁকে নির্বাচনে প্রার্থী করার প্রস্তাব দেন। তিনি তখন সেই প্রস্তাবে রাজি হননি।

দু’ বছর পর অনশন ছাড়ার সেই ইঙ্গিত বাস্তবায়িত হতে চলেছে। শর্মিলার এই সিদ্ধান্তে তাঁর সমর্থকরা কিছুটা বিহ্বল। তাঁর ঘনিষ্ঠ সহযোগী বাবলু লয়তংবাম বলেন, “তিনি কী ভাবে লড়াই চালিয়ে যেতে চান তা বোঝার জন্য তাঁর সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি। তিনি যদি অনশন ত্যাগ করতে চান সেটা তাঁর অধিকারের মধ্যে পড়ে। কিন্তু লড়াই চালিয়ে যাওয়াটা জরুরি।”             

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন